মহাকাশে কি চাষাবাদ সম্ভব?

দূর মহাকাশে চাঁদ কিংবা অন্যান্য গ্রহে আদৌ কি চাষাবাদ করা সম্ভব? এই প্রশ্নের কিছুটা উত্তর মিলল সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি অব জুরিখ হতে প্রকাশিত ‘Simulated microgravity and the antagonistic influence of strigolactone on plant nutrient uptake in low nutrient conditions.’ নামের গবেষণাপত্র থেকে।

স্বাভাবিকভাবে পুষ্টির অপ্রাপ্যতা ও কম মহাকর্ষ বলের কারণে চাঁদে কিংবা অন্য কোনো গ্রহে খাদ্য উৎপাদন আপাতদৃষ্টিতে অনেকটা অকল্পনীয়। কারণ এমন পরিবেশে উদ্ভিদের বেঁচে থাকা-ই কষ্ঠসাধ্য। কিন্তু ‘স্ট্রিগোল্যাক্টোন’ নামক উদ্ভিজ্জ হরমোন দ্বারা এটি সম্ভব হতে পারে বলে দেখিয়েছে প্ল্যান্ট বায়োলজিস্টরা। এই হরমোনটি প্রতিকূল পরিবেশে উদ্ভিদের বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয় ছত্রাক ও উদ্ভিদ মূলের মিথস্ক্রিয়ায় সাহায্য করে।

‘NASA’ সহ অন্যান্য অনেক প্রাইভেট রিসার্চ ইন্সটিটিউট দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছে, পৃথিবীর বাইরে চাঁদে কিংবা অন্যান্য গ্রহে, মানুষের বসবাসের জন্য। কিন্তু পৃথিবীর বাইরে মানুষের এরকম দীর্ঘকালীন অবস্থানের জন্য প্রয়োজন উপযোগী পরিবেশ ও খাদ্য উৎপাদন। ওসব স্থানে খাদ্য উৎপাদনে সমস্যার সমাধান হতে এই উদ্ভিদ-ছত্রাক মিথোজীবীতা ও ‘স্ট্রিগোল্যাক্টোন’ হরমোন।

অন্যান্য গ্রহের বিরুপ পরিবেশে মানুষেরা যদি বসবাস করতে নাও পারে, তবুও এই গবেষণা আমাদের পৃথিবীর খাদ্য সমস্যা সমাধানে ভূমিকা রাখতে পারে। দিন দিন আবাদি জমির পরিমাণ যে হারে কমে যাচ্ছে, সেক্ষেত্রে চাঁদ কিংবা অন্য গ্রহকে চাষাবাদের স্থান হিসেবে নেওয়া যেতে পারে।

সোর্স: Guowei Liu, Daniel Bollier, Christian Gübeli, Noemi Peter, Peter Arnold, Marcel Egli, Lorenzo Borghi. Simulated microgravity and the antagonistic influence of strigolactone on plant nutrient uptake in low nutrient conditions. npj Microgravity, 2018; 4 (1) DOI: 10.1038/s41526-018-0054-z University of Zurich