অভিষেকে ব্যাটের অধিক আলো ছড়াল সাদমানের টেম্প্রামেন্ট

তামিম ইকবালের না থাকাটা বাংলাদেশের ইনিংসের যেকোন শুরুয়াৎ-এর জন্যই অস্বস্তির। এই অস্বস্তি বেড়ে যায়, যখন ইমরুল ধারাবাহিকভাবেই ধারাবাহিকহীনতায় ভোগে। এমন এক পরিস্থিতিতে সাদমান ইসলামের অভিষেক এবং ১৯৯ বলে তার করা দুর্দান্ত ৭৬ রান বাংলাদেশ টিমের জন্য কিছুটা হলেও স্বস্তির কারণ হয়ে উঠেছে। যদিও এই হাফ সেঞ্চুরিটাকে তিন অংকের ঘরে নিতে পারলেন না সাদমান। ক্যারিবীয় স্পিনার বেদেন্দ্র বিশুর বলে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরার আগেই অভিষেকেই তামিমের বিকল্প হবার এক স্পর্ধা দেখিয়ে গেলেন।

সাদমানের ব্যাটের সাথে সমানুপাতে চওড়া হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমনের কণ্ঠ, ‘যাক ভালো খেলছে। রান না করলে কথাটা তো আমাদেরই শুনতে হয় যে ভালো খেলোয়াড় নিতে পারি না।’

৭৬ রানের ইনিংসে সাদমান ক্রিজে ছিলেন ২২০ মিনিট। ডট খেলেছেন ১৪৮টি, বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন মাত্র ৬টি। তার উপর ভরশা রেখেই সাকিব বলেছিলেন, ‘সাদমান টেস্ট ক্রিকেটের জন্য এক্সাইটিং প্রসপেক্ট। ওর খেলার ধরন আমি যতটুক দেখেছি এবং শুনেছি, টেস্ট ক্রিকেটের সাথে খুব মানানসই।’

টেস্টে এ পর্যন্ত বাংলাদেশের হয়ে অভিষেকে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন ১৭ জন। আর অভিষেকে সেঞ্চুরি করেছেন তিনজন। শতক হাঁকাতে পারলেই তাই সাদমান নাম লেখাতে পারতেন আমিনুল ইসলাম বুলবুল, মোহাম্মদ আশরাফুল ও আবুল হাসান রাজুর পাশে।

সংবাদ সম্মেলনে নিজের ইনিংস সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমি সাধারণত যেরকম ব্যাটিং করি সেভাবেই করেছি। আমি চিন্তা করেছি যে বল আসবে, আমি যেভাবে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলি ঠিক সেভাবে এখানে খেলতে হবে। আর কিছু আমি চিন্তা করিনি।’