৫০৮ রানের বিরাট সংগ্রহ বাংলাদেশের

অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহর চমৎকার শতকে ৫০৮ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। প্রথম দিন বাংলাদেশ ৫ উইকেট হারিয়ে ২৫৯ রান সংগ্রহ করে। দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনেও সে ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছে স্বাগতিকরা।

দ্বিতীয় দিন মাঠে নামেন সাকিব এবং মাহমুদুল্লাহ। সাকিব ১৩৯ বলে ৮০ রান করে আউট হয়ে গেলেও শক্তভাবে আগলে রাখেন মাহমুদুল্লাহ। করেন দারুণ শতক। তবে সাকিব ১৩৯ বলে ৮০ রান করে আউট হন। এক টেস্ট পর দলে ফিরে আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে লিটন দাস ৫৪ রানের চমৎকার একটি ইনিংস খেলেন।   তাইজুল ইসলাম ২৬ রান সংগ্রহ করে সাজঘরে ফিরলে মাঠে নামেন আগের ম্যাচে অভিষেক হওয়া নাঈম হাসান।মাহমুদুল্লাহ ১৩৪ রান করে আউট হলে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস থামে ৫০৮ রানে।  নাঈম হাসান ১৫ করে অপরাজিত থাকেন।

প্রথম দিনে, সাদমান সাজঘরে ফেরার আগে খেলে যান ৭৬ রানের চমৎকার একটি ইনিংস, যাতে তিনি বল খরচ করেছেন ১৯৯টি। আর মুমিনুল ও মিঠুন ২৯ রান করে নেন। ওপেনার সৌম্য সরকার করেন ১৯ রান। এক ম্যাচ পরে সুযোগ পাওয়া লিটন দাশ মাঠে নামেন। ৬২ বলে ৮ চার, এক ছক্কায় ৫৪ রান করেন লিটন।

পরে পঞ্চম উইকেট জুটিতে সাকিব-মুশফিক কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। কিন্তু মুশফিক দ্রুত ফিরে গেলে (১৪) কিছুটা চাপে পড়ে যায় দল। তবে সেই চাপ সামলে দলকে এগিয়ে নেন সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ জুটি। দুজনে ১১১ রানের জুটি গড়েন।

এই ম্যাচের বাংলাদেশ একাদশে চমক, অভিষেক হয়েছে তরুণ ওপেনার সাদমান ইসলামের। কোনো পেসার ছাড়াই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। মুস্তাফিজুর রহমানকে বসিয়ে একাদশে রাখা হয়েছে উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান লিটন দাসকে। গতকালই তাঁকে দলে নেওয়া হয়। মুশফিকের ব্যাকআপ হিসেবেই লিটনকে দলে নেওয়া হয়।