খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা ফিরে পেতে আবার আদালতে

[su_heading size=”17″]খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র ফিরে পেতে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছেন বিএনপির আইনজীবীরা। আজই এ বিষয়ে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট হতে পারে বলে আইনজীবীরা জানিয়েছেন।[/su_heading]

খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিল করে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) দেওয়া দ্বৈত রায়ের কপি আজ দুপুরে হাতে পেয়ে আইনজীবীরা এটি নিয়ে হাইকোর্টে আসেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, ‘খালেদা জিয়া রিটার্নিং কর্মকর্তা ও নির্বাচন কমিশনে ন্যায়বিচার পাননি। তাই তিনি হাইকোর্টে রিট দায়ের করবেন। আমরা আশা করছি, উচ্চ আদালতে তিনি ন্যায়বিচার পাবেন।’

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার পক্ষে ফেনী-১, বগুড়া-৬ ও বগুড়া-৭ আসনে মনোনয়ন ফরম জমা দেওয়া হয়। দুটি মামলায় তিনি দণ্ডিত হওয়ায় রিটার্নিং কর্মকর্তারা তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল বলে ঘোষণা করেন। এরপর গত ৫ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা তাঁর পক্ষে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল আবেদন করেন। গতকাল শুনানির সময় সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা। তারা তিনটি আসনেই খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা অবৈধ ঘোষণা করে।

আজ ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময়। কাল ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ। আর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ৩০ ডিসেম্বর।

Comments are closed.