‘যতই নির্যাতন করা হোক না কেন, বিএনপি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে’

‘দেশে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নেই। সর্বত্র নন-লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বিরাজ করছে। সরকারি দল প্রচার চালালেও ধানের শীষের প্রার্থী ও সমর্থকদের ওপর হামলা হচ্ছে। গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। প্রার্থীদের প্রচারে বাধা দেওয়া হচ্ছে।’ আজ বুধবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে দলের নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মওদুদ আহমদ এসব কথা বলেন।

মওদুদ আহমদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যতই বিধি লঙ্ঘন করুক ও অত্যাচার করুক, বিএনপি শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবে। ৩০ ডিসেম্বর ৫০ শতাংশ সুষ্ঠু নির্বাচন হলেও এরপর আওয়ামী লীগের খবর পাওয়া যাবে না। আর সে জন্য পরাজয়ের ভয়ে নির্যাতনের পথ বেছে নিয়েছে তারা।’

মওদুদ আহমদ বলেন, ‘নির্বাচনের সময় সবকিছু কমিশনের নিয়ন্ত্রণে থাকার কথা। কিন্তু এখন দেখি সবকিছু সরকারের অধীনে। আমাদের কোনো দাবিই মানা হয়নি। উল্টো এখন হামলা মামলা ও নির্যাতন বেড়েছে। যতই নির্যাতন করা হোক না কেন, বিএনপি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে। ভোটের মাঠে সরকারি দলের সবকিছু আছে, কিন্তু তাদের মাঠে-ময়দানে কোনো ভোট নেই। তারা নির্বাচনের দিন পর্যন্ত এই নৈরাজ্যজনক আচরণ অব্যাহত রাখবে। কোনো সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন আদৌ হবে কি না, দেশের সব শ্রেণির মানুষের মধ্যে এই প্রশ্নটি এখন দেখা দিয়েছে।’

সাবেক আইনমন্ত্রী মওদুদ আরো বলেন, ‘ধানের শীষের জোয়ার দেখে সরকার নির্যাতনের পথ বেছে নিয়েছে। সরকার বুঝে গেছে, তাদের কোনো ভোট নেই। তাদের সঙ্গে জনগণ নেই। তাই তারা এ হামলা মামলার পথ বেছে নিয়েছে। এ ছাড়া তাদের আর কোনো উপায় নেই।’

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীও উপস্থিত ছিলেন।