আওয়ামী লীগ দেশে সন্ত্রাস কায়েম করেছে : চরমোনাই পীর

বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের তামান্না মোড়ে হাতপাখা মার্কার নির্বাচনি পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলনের আমির চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করিম বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ দেশে সন্ত্রাস কায়েম করেছে। তাই তারা বলে বেড়াচ্ছে নির্বাচনে পরাজিত হলে আওয়ামী লীগের এক লাখ নেতাকর্মী মারা যাবে এবং লাখ লাখ নেতাকর্মী ঘরছাড়া হবে। আমার প্রশ্ন আপনাদের এমন ভয় কেন?’

তিনি এ সময় বলেন, ‘এই পাঁচ বছরে আওয়ামী লীগের ভাগ্য বদল হয়েছে, জনগণের ভাগ্য বদল হয়নি। জালেমের হাত থেকে মুক্তির জন্য আমরা ভোট চাই। এখনকার রাজনীতি হয়েছে প্রতিহিংসার রাজনীতি। আওয়ামী লীগ এদেশে জুলুমের রাজত্ব কায়েম করতে চায়। তাদের বিজয় অনিশ্চিত জেনেই তারা ভোট কেন্দ্রে ভোট চুরি, ভোট ডাকাতি করতে চায়।’

চরমোনাই পীর বলেন, ‘তারা ভোট চুরি বা ডাকাতি করার আগেই আপনারা ভোট দেবেন। তারা ভোট চুরি করতে যেন না পারে। আপনার ভোটের রায়ে যেন কোনও সুদখোর বা চোর সংসদে না যায়। সুদখোর বা চোরদের সংসদে পাঠালে তাদের সাক্ষী হিসেবে থাকবেন। আমরা আর কোনও প্রতারক বা চোরকে ভোট দিয়ে সংসদে পাঠাবো না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের নির্বাচনি প্রচারণায় সন্ত্রাসী হামলা চালানো হচ্ছে। পোস্টার লাগাতে বাধা প্রদান করা হচ্ছে। পথসভা ও গণসংযোগে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হচ্ছে।’

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি জেনারেল মো. হাসিবুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আতিকুর রহমান মুজাহিদ, নীলফামারী-৪ আসনের হাতপাখার প্রার্থী শহিদুল ইসলাম, সৈয়দপুর উপজেলা সভাপতি মো. সদর উদ্দিন, সেক্রেটারি হাফেজ নুরুল হুদা।