লিভারপুল, চেলসি জয় পেলেও হেরে গেছে আর্সেনাল

মোহাম্মদ সালাহ’র দ্বিতীয়ার্ধের পেনাল্টিতে ব্রাইটনকে ১-০ গোলে পরাজিত করে প্রিমিয়ার লিগ টেবিলে সাত পয়েন্ট এগিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে লিভারপুল।

অন্যদিকে ওয়েস্ট হ্যামের কাছে পরাজিত হয়ে শেষ চারে থেকে লিগ শেষ করার স্বপ্ন আরেকবার বাঁধাগ্রস্ত হয়েছে আর্সেনালের। নিউক্যাসেলকে ২-১ গোলে পরাজিত করে গানার্সদের থেকে ৬ পয়েন্ট এগিয়ে চেলসি বেশ ভালভাবেই চতুর্থ স্থান দখল করে আছে।

লিভারপুল ম্যানেজার জার্গেন ক্লপ বলেছেন, দক্ষিণ উপকূলীয় ব্রাইটনে খেলতে গিয়ে তার দল বেশ সমস্যায় পড়েছে, এতে কোন সন্দেহ নেই। ম্যাচের ৫০ মিনিটে জার্মান মিডফিল্ডার পাসকাল গ্রসের ফাউলের বিপরীতে আদায় করে নেয়া পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন সালাহ। শেষ পর্যন্ত ঐ এক গোলেই লিভারপুলের জয় নিশ্চিত হয়। মৌসুমে মিশরীয় এই তারকার এটি ছিল ১৭তম গোল। ম্যাচে এই একটি মাত্র সাফল্য ছাড়া আর কিছুই কার্যত অর্জিত হয়নি লিভারপুলের। সোমবার উলভসকে হারাতে পারলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা সিটি পয়েন্টের ব্যবধান কমাতে পারবে।
ম্যানচেস্টার সিটির কাছে প্রিমিয়ার লিগে পরাজয় দিয়ে বছর শুরু করা লিভারপুল গত সপ্তাহে উলভসের কাছে পরাজিত হয়ে এফএ কাপ থেকে বিদায় নেয়। কালকের জয়টা ছিল অল রেডদের বছরের প্রথম জয়। ক্লপ বলেছেন, ‘আমরা হারলেম গ্লোবট্রটার্স নই যে এখানে প্রদর্শনী ম্যাচ খেলতে এসেছি। এখানে ফলাফলটা জরুরী। আর এজন্য পারফর্ম করতে হবে। আজকের ম্যাচে পারফরমেন্স ভালই ছিল। যদিও এটা মৌসুমের সেরা পারফরমেন্স ছিল না। কিন্তু দারুন একটি পরিণত ম্যাচ খেলেছে ছেলেরা।’
লন্ডন স্টেডিয়ামে টিনএজার ডিক্লান রাইসের ওয়েস্ট হ্যামের হয়ে প্রথম গোলে উনাই এমেরির আর্সেনাল ১-০ গোলে পরাজিত হয়েছে। আরো একবার এমেরির বিবেচনায় মাঠের বাইরে ছিলেন মেসুত ওজিল। এর মাধ্যমে লিগে এ্যাওয়ে ম্যাচে আর্সেনালের পরাজয়ের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো পাঁচ। জার্মান তারকা ওজিলের অনুপস্থিতি প্রসঙ্গে এমেরি বলেছেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম এই মাঠে যারা সেরা তাদের নিয়েই মাঠে নামবো। আমরা তাদের বিপক্ষে জিতেছি, আবার পরাজিতও হয়েছি। কোন খেলোয়াড়ই জয় ও পরাজয়ের মাঝে পার্থক্য গড়ে দিতে পারেনি।’
ওয়েস্ট হ্যাম জিতলেও কালকের দিনটা হ্যামারসদের জন্য মোটেই সুখকর ছিলনা। দলের তারকা স্ট্রাইকার মার্কোর অরানাটোভিচকে হয়তবা এই ম্যাচের মাধ্যমেই তারা বিদায় জানাতে যাচ্ছে। অস্ট্রিয়ান এই তারকার সাথে চাইনিজ সুপার লিগের যোগাযোগের ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।
আর্সেনালের পরাজয়ের সুবিধা নিয়ে চেলসি নিউক্যাসেলের উপর চেপে বসে। স্ট্যামফোর্ড ব্রীজে ৯ মিনিটে পেড্রো রডরিগুয়েজের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিক চেলসি। কিন্তু ৪০ মিনিটে কিয়ারান ক্লার্কেল হেডে সমতা ফেরায় নিউক্যাসেল। ৫৭ মিনিটে এডেন হ্যাজার্ডের সহায়তায় উইলিয়ানের দুর্দান্ত স্ট্রাইকে মরিসিও সারির দলের জয় নিশ্চিত হয়।