মুক্তিযুদ্ধকে বিক্রি করে আমরা যেন নিজেদের স্বার্থ উদ্ধার না করি

রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জে মানবাধিকার, সংবিধান ও বাংলাদেশ ষীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধকে বিক্রি করে নিজের স্বার্থ উদ্ধার না করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল।

সুলতানা কামাল বলেন, ‘উত্তরাধিকার হতে হবে সু-উত্তরাধিকারী। উত্তরাধিকারকে সমৃদ্ধ করে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবে বেচে খাওয়া না। আমরা যেন মুক্তিযুদ্ধকে বেচে নিজের স্বার্থ উদ্ধার না করি। বরং সেটাকে আরো সমৃদ্ধ করি।’

বাংলাদেশের দুর্নীতির সূচক সম্পর্কে সুলতানা কামাল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবার ক্ষমতায় এসে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স নীতি অনুসরন করছেন। কিন্তু দুর্নীতির সূচকে বাংলাদেশ খুব খারাপ জায়গায় রয়েছে।’

তিনি উল্লেখ করেন, দুর্নীতির সূচকে ১০০ এর মধ্যে ৪৩ না পাওয়া পর্যন্ত এটা বলা সম্ভব না যে দুর্নীতি প্রতিরোধে ভাল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কিন্তু আমরা ২৫ থেকে ২৬ উঠলেই বলি ভাল করেছি, আবার ২৬ থেকে ২৮ উঠলেই বলি অনেক ভাল করেছি। নিঃসন্দেহে এটি ভাল। কিন্তু এর মানে এই না যে দুর্নীতি প্রতিরোধে আমার ভাল করছি।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রণদা প্রসাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য প্রফেসার ড. মনীন্দ্র কুমার রায়। প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রিবোর্ডের চেয়ারম্যান রাজিব প্রসাদ সাহা, ট্রাস্টিবোর্ডের সদস্য শ্রীমতি সাহা, কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পরিচালক সম্পা সাহা, রণদা প্রসাদ সাহা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রিবোর্ডর উপদেষ্টা সাবেক সচিব আবু আলম মো. শহীদ খানসহ অনেকে।