পাকিস্তানের জন্য পরবর্তী ৭২ ঘণ্টা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ- পাক রেলমন্ত্রী

ভারতকে জবাব দেওয়ার জন্য পুরো দেশ প্রস্তুত বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী শেইখ রশিদ। তিনি বলেন, এই পরিস্থিতিতে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়া দেশটির আকাশসীমায় জরুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটি। বুধবার এ খবর দিয়েছে পাকিস্তানের ইংরেজি দৈনিক এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী শেইখ রশিদ আহমদ। ছবি- এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

এদিকে পাকিস্তানের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বাণিজ্যিক বিমানের জন্য দেশের আকাশসীমা আনুষ্ঠানিকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আজ (বুধবার) টুইটার বার্তার মাধ্যমে এ ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

এর আগে, বিমানবন্দরের একজন কর্মকর্তা ডন নিউজ টিভিকে জানিয়েছেন, পেশোয়ারের বাচা খান আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বাণিজ্যিক বিমান চলাচল শুরুর আগ পর্যন্ত বিমানবন্দরটি সামরিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হবে। এ বিষয়ে বিমানবন্দরে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

ফ্লাইট বাতিলের পর বিমানবন্দরে পাকিস্তান এয়ারলাইন্সের এক বিমান দেখা যাচ্ছে। ছবি- রেডিও তেহরান।

ওই কর্মকর্তা জানান, বাণিজ্যিক বিমানের সমস্ত ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। লাহোর ও করাচি বিমানবন্দরের ব্যাপারেও একই ধরনের রিপোর্ট পাওয়া গেছে। করাচি থেকে দিল্লিগামী একটি ফ্লাইট বাতিলের খবর দিয়েছে ডন নিউজ। এছাড়া, লাহোর থেকে ব্রিটেনের ম্যানচেস্টারগামী একটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। ভারতও কাশ্মিরের শ্রীনগর, জম্মু ও লেহ বিমানবন্দরে বেসামরিক বিমান চলাচলবন্ধ করে দিয়েছে।

এর আগে এদিন সকালে কাশ্মীরের আকাশ থেকে দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান গুলি করে ভূপাতিত করেছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের এক সামরিক মুখপাত্রের বরাতে বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর দিয়েছে। এছাড়া একজন ভারতীয় পাইলটকে আটক করার কথাও জানা গেছে।

পাকিস্তানি সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর টুইটারে বলেন, পাকিস্তান সীমান্তে ভারতীয় বিমান বাহিনীর দুটি বিমান গুলি ধ্বংস করা হয়েছে। এছাড়া ভারতের অংশেও আরেকটি বিধ্বংস্ত হয়েছে।