কাশ্মীরি ইসলামিক পার্টিকে নিষিদ্ধ করলো ভারত

ভারত বৃহস্পতিবার পাঁচ বছরের জন্য জামায়াত-ই-ইসলামি (জেইআই) নামক একটি কাশ্মীর 
ভিত্তিক ইসলামপন্থী রাজনৈতিক দলকে নিষিদ্ধ করেছে। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়
যে, পাকিস্তানের সাথে ভারতের দ্বন্দ্ব যখন ক্রমেই বাড়ছে ঠিক এসময় তাঁরা পাকিস্তানকে 
সমর্থন করছে।

একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ভারতের নিয়ন্ত্রণাধীন কাশ্মিরে ১৪ ফেব্রুয়ারি আত্মঘাতী বোমা
হামলায় ৪০জন আধা সামরিক বাহিনীর সদস্য নিহত হওয়ার পর ভারতীয় কর্তৃপক্ষ সাম্প্রতিক
সময়ে জঙ্গিবাদের হুমকির মুখে ৩০০ জন জেইআই নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে।
পাকিস্তান-ভিত্তিক একটি জঙ্গি গোষ্ঠী এই হামলাটি করেছে বলে দাবী করা হয়েছিল। এ ঘটনা
পারমাণবিক অস্ত্র সমৃদ্ধ দেশদুটির বিমান বাহিনীকে যুদ্ধের দিকে পরিচালিত করছে।

১৯৪২ সালে তৈরী হওয়া জেইআই দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে ভারতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে আসছিল।এমনকি ১৯৮৯ সালে কাশ্মীরে জঙ্গিবাদের সূত্রপাতের পরও এই ধারা অব্যাহত ছিল।

সংগঠনটির উপর এটি তৃতীয় নিষেধাজ্ঞা। জেইআই চায় কাশ্মিরকে ভারতের থেকে স্বাধীন করতে।
ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ভারতের একটি অংশ বিচ্ছিন্ন করার দাবিতে জেইআই সমর্থন
করে এবং এর কার্যক্রম যদি বন্ধ না হয় তবে এটি দেশের জন্য সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে।
সরকার জিইআইকে একটি "বেআইনী সংগঠন" ঘোষণা করেছে।
মন্ত্রণালয় থেকে আরও বলা হয়, "যদি জিইআইয়ের বেআইনী কার্যক্রমগুলি এখনই নিয়ন্ত্রণ 
করা না হয় তবে তাঁরা অবিলম্বে আইনিভাবে নির্বাচিত সরকারকে অস্থিতিশীল করে তুলবে
এবং ভারতের কেন্দ্রীয় অঞ্চলের বাইরে ইসলামী রাষ্ট্র গঠনের প্রচেষ্টা করবে। যা তাঁদের ধ্বংসাত্মক
কাজের দিকে অগ্রসর করবে।
রয়টার্স থেকে জিইআইয়ের সাথে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করেনি।

সূত্র- রয়টার্স