ঢাবিতে ৭ই মার্চ ভবন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

৭ই মার্চ ভবন উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী। ছবি: সংগৃহীত।

তিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ স্মরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলে নির্মিত হয়েছে ‘৭ মার্চ ভবন’। আজ শনিবার (০১ সেপ্টেম্বর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের এই ভবন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  উদ্বোধন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ঐতিহ্যের কথা বলতে গিয়ে  তিনি বলেন: জাতির পিতার সময়ে যত আন্দোলন হয়েছে সেটার সূতিকাগার হিসেবে আন্দোলন সংগ্রাম এগিয়ে নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। সব আন্দোলন সংগ্রাম এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই শুরু। বাংলা ভাষায় কথা বলা থেকে শুরু করে স্বাধীনতা সংগ্রামের সূত্রপাত এই বিশ্ববিদ্যালয়েই।

৮৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই ভবনে এক হাজার শিক্ষার্থীদের আবাসনের ব্যবস্থা হবে। এছাড়া ভবনের রয়েছে পাঁচতলা প্রশাসনিক ব্লক, সার্ভিস ব্লক ও জাদুঘর। বাঙালিদের সশস্ত্র সংগ্রামের বিরল ছবি এবং স্বাধীনতাযুদ্ধে নারীদের অংশগ্রহণ ও অবদানসংক্রান্ত তথ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে জাদুঘর।

প্রধানমন্ত্রী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম রোকেয়া হলে পৌঁছালে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের শীর্ষ ব্যক্তিরা তাঁকে স্বাগত জানান।রোকেয়া হলের দুই ছাত্রী লিপি আক্তার ও শ্রাবণী ইসলাম প্রধানমন্ত্রীকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন। তিনি জাদুঘর পরিদর্শন ও পরিদর্শক বইয়ে স্বাক্ষর করেন এবং পরে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ৭ মার্চ ভবন উদ্বোধন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে  শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন। এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) মুহাম্মদ সামাদ, সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) নাসরিন আহমেদ, ট্রেজারার কামালউদ্দিন ও রোকেয়া হলের প্রভোস্ট জিনাত হুদা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, জাতীয় অধ্যাপক, শিক্ষাবিদ, রাজনৈতিক নেতা ও অন্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।