বাংলাদেশি টিভি চ্যানেল দেখানোয় ক্ষুব্ধ মমতা,অবিলম্বে বন্ধের নির্দেশ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের চারটি জেলায় অবৈধভাবে বাংলাদেশের টিভি চ্যানেল দেখানো হচ্ছে। এতে ক্ষুব্ধ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তিনি অবিলম্বে সেগুলোকে বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন।

সম্প্রতি নবান্নে মাল্টিপল সিস্টেম অপারেটর (এমএসও) এবং কেবল অপারেটরদের তিনি বলেছেন- মুর্শিদাবাদ, নদীয়া, বর্ধমান ও পূর্ব মেদিনীপুরে বেশ কয়েকটি বাংলাদেশি চ্যানেল বিনা অনুমতিতে দেখানো হচ্ছে। অবিলম্বে সেগুলো দেখানো বন্ধ করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী এমএসও এবং কেবল অপারেটরদের নির্দেশ দিয়েছেন।

মমতা অভিযোগ করেছেন, এই সব বাংলাদেশি টিভি চ্যানেল এমন সব স্পর্শকাতর বিষয় প্রচার করছে, যার ফলে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিঘ্নিত হতে পারে।

কেবল অপারেটররাও স্বীকার করেছেন যে, আইন না মেনেই বিভিন্ন জেলায় বাংলাদেশের কিছু টিভি চ্যানেল দেখানো হচ্ছে। আইডিয়াল কেবল অপারেটর এসোসিয়েশনের পাপাস দাস বলেছেন, এর আগেও রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বাংলাদেশের টিভি চ্যানেল দেখানো হয়েছে। তবে বর্তমানে পরিস্থিতিটা কি তা জানা নেই। তিনি বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পর আমরা এমএসও এবং কেবল অপারেটরদের বলবো আইন মেনে চলতে এবং বেআইনিভাবে যেন বাংলাদেশি চ্যানেল দেখানো না হয়।  ভারতে বাংলাদেশি টিভি চ্যানেল দেখানোর কোনো অনুমতি নেই।

অবশ্য বাংলাদেশের টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ বহুদিন ধরেই চেষ্টা করছেন পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশি টিভি চ্যানেলর দেখানোর জন্য। কিন্তু বাংলাদেশের টিভি চ্যানেলগুলোর বক্তব্য, পশ্চিমবঙ্গের কেবল অপারেটররা সেজন্য প্রচুর অর্থ দাবি করছেন। সম্প্রতি কলকাতা সফরে এসে বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলে গেছেন, ভারতে বাংলাদেশি চ্যানেল দেখানোর জন্য আলোচনা চলছে। কিছুদিন আগেই দিল্লিতে এ ব্যাপারে বাংলাদেশ টিভির একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা শোনা গিয়েছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সেই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়নি।