ই-সিগারেট ব্যবহারে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা ৩৪ শতাংশ বেশি

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত যুক্তরাষ্ট্রের এক গবেষণায় বলা হয়, যারা ই-সিগারেট ব্যবহার করেন তাঁদের
হৃদরোগের সম্ভাবনা, যা ই-সিগারেট ব্যবহার করেন না তাঁদের থেকে বেশি। ই-সিগারেট 
ব্যবহারকারীদের হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা ৩৪ শতাংশ বেশি থাকে।


গবেষণায় আরও বলা হয়, ই-সিগারেট ব্যবহারকারীরা ২৫ শতাংশ বেশি কোরননারি ধমনী রোগে
আক্রান্ত হয় এবং ৫৫ শতাংশ বেশি বিষণ্নতা বা উদ্বিগনতার শিকার হয়।
ক্যান্সাস স্কুল অব মেডিসিন ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক এবং গবেষক লেখক মোহিন্দর 
ভিনদার বলেন, "এখন পর্যন্ত ই-সিগারেট ব্যবহারের সাথে কার্ডিওভাসকুলার এর মতো
ঘটনার যোগাযোগ পাওয়া গেছে।

তিনি বলেন, "এই তথ্য আমাদের জন্য একটি সতর্ক বার্তা, যা ই-সিগারেটের বিপদ সম্পর্কে 
আমাদের সচেতনহতে উৎসাহিত করবে।"

যদিও রিপোর্টি কার্ডিওভাসকুলার নির্দিষ্ট কারণ এবং প্রভাব সনাক্ত করতে পারেনি।
মার্কিন স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ ই-সিগারেট এর ব্যবহার সম্পর্কে সতেচন করছে। ব্যাটারি চালিত 
এই ডিভাইসগুলির জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি উদ্বেগজনক। এর ব্যবহারকারীরা নিকোটিন তরলগুলি 
নিঃশ্বাসের সাথে নিতে পছন্দ করে এর বিভিন্নরকম স্বাদের জন্য।
তথ্য মতে, এই বাষ্প ডিভাইসের ব্যবহার আগের বছরের তুলনায় ২০১৮ সালে ৭৮ শতাংশ 
বেড়েছে।
তবে ই-সিগারেটগুলিতে এখনো তামাকের মতো ক্যান্সার-উৎপাদক উপাদান পাওয়া যায়নি।
আমেরিকান কলেজ অফ কার্ডিওলজিতে আগামী সপ্তাহে এই গবেষণার তথ্য উপস্থাপন করা হবে,
গবেষকরায২০১৪,২০১৬ এবং ২০১৭ সালের প্রায় ১০০০০০ মানুষের শারীরিক পরীক্ষার ফলাফল
উপস্থাপন করবেন।