আলতা পায়ে চালতা ফুল : হেনরী স্বপন

রঙিন দেশটা গড়ি

আলতা পায়ে চালতা ফুল
বৃষ্টি নামে মাঠে
ব্যঙের মতো পেট ফুলিয়ে
বেলুনগুলো ফাটে।

ফাটলো বোমা ছুড়ল গুলি
দৈত্য পাকিস্তান
দেশের জন্য শহীদ হল
ত্রিশ লক্ষ প্রাণ।

প্রাণ হারালো, কতো মায়ের
করল খালি বুক
কোথায় মায়ের স্বপ্ন দেখা?
স্বাধীনতার সুখ।

সুখের পায়রা উড়ে বেড়ায়
মায়ের ছোট্ট পরি
সবুজ ঘাসে আয়রে তোরা
রঙিন দেশটা গড়ি।

 


 

থাকবে হেসে-খেলে

দেশটি ভরা শাপলা ফুলে ফুলে
ফুল তুলতে ভুলে–
শালুক দিলাম তুলে।

ধানের ক্ষেতে উতল বাতাস ঢেউ
লুটায় আঁচল কেউ–
গাঁয়ের নতুন বউ।

নদীর বুকে জোয়ার শুরু হলে
আয়না দেখা জলে–
মাছের খেলা চলে।

রাখাল ছেলে বাজায় পাতার বাঁশি
হাজার ফুলের হাসি–
ফুটবে রাশি রাশি।

ফড়িং-টড়িং উড়ছে ডানা-মেলে
দেশটি এমোন পেলে–
থাকবে হেসে-খেলে।

 


 

হাতে নেই ঘড়ি তার

হুলো-ফুলো চুল-গুলো
শিমুলের কালো তুলো।

তুলো চুলে ফুল গোঁজা
ভাব-সাব নয় সোজা।

চোখ জোড়া উড়ু-উড়ু
রাগ করে, গুরু-গুরু।

হাসি দিলে, টোল তোলা;
গোল গালে, লুচি-ফোলা।

হাতে নেই ঘড়ি তার
গুল-গুলি পরিটার…।