কবিরাজের গোলাপ জল খেয়ে রোগীর মৃত্যু

কুমিল্লা জেলায় কবিরাজের ওষুধ খেয়ে রোগীর মৃত্যু।

সোমবার (০৩ সেপ্টেম্বর) কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলার বাড়েরা ইউনিয়নের ছাতাড্ডা গ্রামে আবুল কালাম কবিরাজের ওষুধ খেয়ে শামীম খান (৪৫) নামের এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এলাকাবাসী কবিরাজকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

নিহত শামীম খান (৪৫) চাঁদপুর জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলার পাঁচঘড়িয়া গ্রামে মাহবুব খানের ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী রীনা আক্তার বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শামীম খান দীর্ঘদিন যাবৎ ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন । বিভিন্ন ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি। কিন্তু  প্রত্যাশিত ফলাফল না পেয়ে ভাল চিকিৎসার আশায় ছুটে আসেন কবিরাজ আবুল কালামের কাছে। কবিরাজ ক্যান্সারের  রোগীকে ১০৭ টি গোলাপ জল পান করতে দেন।  ৬০টি গোলাপ জল পান করার পর অবশিষ্ট গোলাপ জল খেতে পারছিলেন না রোগী, অবশিষ্ট গোলাপ জল পান না করার অপরাধে রোগীর উপর নির্যাতন চালান আবুল কালাম। এক পর্যায়ে রোগী অজ্ঞান হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

চান্দিনা থানার ওসি মুহাম্মদ শামসুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ‘জীনের বাদশা’খ্যাত  কবিরাজ আবুল কালামকে আটক করা হয়েছে।