মুসলিমদের “সালাম” দিয়ে নিউজিল্যান্ড পত্রিকার প্রচ্ছদ

 নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলার সপ্তাহ পূর্ণ হলো আজ। দেশটির জাতীয় দৈনিকগুলোর প্রথম পাতাজুড়ে আজ বড় করে ছাপা হয়েছে- ‌‘সালাম, শান্তি’। আর অন্য জায়গাগুলো শূন্য রাখা হয়েছে।

গত শুক্রবার জুমার নামাজের ১০ মিনিট পর ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদ ও লিনউড মসজিদে বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলায় ৫০ জন মুসল্লি নিহত হয়েছেন। তাদের স্মরণে ও মুসলমানদের প্রতি সহমর্মিতা ও সংহতি জানিয়ে দেশটির দৈনিকগুলো এমন অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে।

দেশটির জাতীয় দৈনিক দ্য প্রেসের প্রথম পাতায় বড় অক্ষরে আরবিতে সালাম লেখা হয়েছে। এর নিচে ইংরেজিতে সালাম, শান্তি লেখা রয়েছে।

এর নিচে লেখা রয়েছে- ‘দুপুর ১:৩২, ক্রাইস্টচার্চে এলোপাতাড়ি গুলিতে নিহতদের জন্য আমরা দুই মিনিট নিরবতা পালন করেছি।’ তারপর ধারাবাহিকভাবে নিহতদের নামগুলো উল্লেখ করা হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলায় নিহতদের সবার পরিচয় নিশ্চিত করা হয়েছে।  কয়েকটি মরদেহ দাফনও করা হয়েছে। অন্যগুলো দাফনের ব্যবস্থা চলছে।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) ৩০ জনের মরদেহ পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। প্রথম ধাপে বুধবার (২০ মার্চ) পাঁচজনের লাশ ‘ক্রাইস্টচার্চ মেমোরিয়াল সিমেটারি’ কবরস্থানে দাফন করা হয়।

অন্যদিকে নারকীয় এই হত্যাকাণ্ডের ১ সপ্তাহ পর ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদ ও লিনউড মসজিদ আজ খুলে দেয়া হয়। দুই মসজিদেই জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মোটরসাইকেল চালকদের স্থানীয় তিনটি গ্রুপ নামাজের সময় মসজিদের বাইরে মুসল্লিদের নিরাপত্তায় ছিল ।

অন্যদিকে নিউজিল্যান্ড সরকার অস্ত্র আইনে পরিবর্তন এনে স্বয়ংক্রিয় ও আধা-স্বয়ংক্রিয় রাইফেল বিক্রি নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে। একইসঙ্গে নিউজিল্যান্ডে অস্ত্র আইনে বড় পরিবর্তন আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডার্ন।