হেলিকপ্টারে পানি নেয়ার সমালোচনাকারীদের জবাব দিলো এয়ারফোর্স

রাজধানীর বনানীর এফ আর টাওয়ারে লাগা ভয়াবহ আগুন নেভাতে ফায়ার সার্ভিস বাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হয় বিমানবাহিনীর পাঁচ হেলিকপ্টারও। হেলিকপ্টারে পানি এনে ছিটানো হয় আগুন লাগা ভবনে।

আশপাশের লেক থেকে এ জন্য পানি সংগ্রহ করতে হয়। এ সময় পানি তোলার সময় পাত্র থেকে পানি পড়ে যাওয়ার কয়েকটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকে। যা নিয়ে অনেকেই হাস্যরস করেছেন।

বিমানবাহিনীর ফেসবুক পেজ (বাংলাদেশ এয়ারফোর্স) থেকে এ বিষয়ে একটি জবাব দেওয়া হয়েছে।

সেখানে এসব সমালোচনাকে হাস্যকর বলা হয়েছে। ‘প্রথম দেখায় ভুল বোঝা’ বলে একে সহজাত প্রবৃত্তি হিসেবেও অভিহিত করা হয়েছে।

বাংলাদেশ এয়ার ফোর্সের ভেরিফায়েড পেজ থেকে কয়েকটি কমেন্টে বলা হয়, ‘হেলিকপ্টার দ্বারা এ ধরনের মিশনের সময় পানির প্রকৃতি/ধরন জানা এবং বোঝা খুবই জরুরী’।

‘কোনরুপ পূর্বধারনা ব্যতিরেকে, সময়ের প্রয়োজনে, জাতির স্বার্থে, জরুরি অবস্থা মোকাবেলা করতে পাইলট প্রথমে যেই জায়গা থেকে পানি উত্তোলন করেছিলেন, তা প্রচন্ড বালি এবং কাদা মিশ্রিত ছিল এবং সেই কারনে তা নিঃসরণ করে, পরিবর্তিত ইক্যুইপমেন্ট নিয়ে ভিন্ন জায়গা থেকে অপারেশন চালাতে হয়’।

মন্তব্যে এয়ারফোর্স আরো বলে, “প্রথম দেখায় ভুল বোঝা” – এটি মানবজাতির একটি সাধারণ প্রকৃতি। মনোবিজ্ঞানের ভাষায় এটাকে “Fundamental Attribution Error” বলা হয়। আসল কারন না জেনেই আমরা বিরূপ মন্তব্য করে আনন্দ পাই এবং অন্যকে ছোট করে খুব গর্বিত বোধ করি। মন্তব্যকারীর মধ্যে কেউই হয়তো বা পাইলট না কিংবা হেলিকপ্টার চালানোর ন্যুনতম ধারনা ও নেই। তাই এভাবে অন্যের পেশাদারিত্বকে প্রশ্নবিদ্ধ করা হাস্যকর।’

সূত্র – দেশ রূপান্তর।