‘এ ঘটনা দেশের মাদরাসা শিক্ষার ইতিহাসে অতীতে কখনো ঘটেনি’

মাদরাসা শিক্ষকদের একমাত্র অরাজনৈতিক সংগঠন জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা শাব্বীর আহমদ মোমতাজী বলেছেন, এ ন্যাক্কারজনক ঘটনা দেশের মাদরাসা শিক্ষার ইতিহাসে অতীতে কখনো ঘটেনি। এটি মাদরাসা শিক্ষা ও শিক্ষকদের চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। এ ঘটনায় জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের নেতৃবৃন্দ অত্যন্ত লজ্জিত, মর্মাহত ও ব্যথিত।

নুসরাতের গায়ে আগুন দেয়ার ঘটনা শুনে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছুটে যান। এ অবস্থা দেখে তিনি নিজেই কয়েকদিন অস্থির ছিলেন বলে মন্তব্য করেন।

অভিযুক্ত প্রিন্সিপালের এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার কঠোর শাস্তি দাবি করেন তিনি। নুসরাতের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সরকার যে পদক্ষেপ নিয়েছে তাকে সাধুবাদ জানান তিনি।

নিহতের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দেশের সকল মাদরাসা ও মসজিদে দোয়া করার জন্য জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেয়া হয়।

জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মহাসচিবের সাথে নুসরাতের বাড়িতে যান ফেনী জেলার নেতৃবৃন্দ। এসময় মহাসচিবের উপস্থিতিতে জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ, শোকগ্রস্থ পরিবারকে নগদ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়।