গরমে ডায়রিয়া প্রতিরোধে করণীয়

গরমে ডায়রিয়ার প্রকোপ বাড়ে। হাসপাতাল গুলোতে ডায়রিয়া আক্রান্ত নানা বয়সের  রোগীর ভিড়। শিশুদের ডায়রিয়ার প্রধান কারণ হলো বোটা ভাইরাসজনিত সংক্রামন।

ডায়রিয়া কেন হয়?

অপরিচ্ছন্ন ও অস্বাস্থ্যকর জীবন যাপন, যেখানে সেখানে ও পানির  উৎসের কাছে মল ত্যা্‌ সঠিক উপায় হাত না ধোয়া, অপরিচ্ছন্ন উপায় খাদ্য সংরক্ষণ এবং ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের কারণে দোকান রেস্তোরাঁ বা  বাসার ফ্রিজের খাবারে পচন ধরা ডায়রিয়ার অন্যতম কারণ।

ডায়রিয়া হলে কি করবেন.

১।  প্রতিবার পাতলা পায়খানার পর বয়স অনুযায়ী পরিমাণ মতো খাবার স্যালাইন পান করতে হবে।

২। খাবার স্যালাইন ছাড়াও ঘরে তৈরি তরল খাবার যেমন ডাবের পানি ভাতের মাড় চিড়ার পানি তাজা ফলের রস ইত্যাদি খাওয়া যেতে পারে।

৩।  স্বাভাবিক খাবার ও পাশাপাশি চালিয়ে যেতে হবে।

৪। বুকের দুধ খাওয়া শিশুরা খাবার স্যালাইন এর পাশাপাশি বুকের দুধ খাবে।

ডায়রিয়া প্রতিরোধে করণীয়

১। রাস্তাঘাট এর শরবত, পানি ইত্যাদি পান পরিহার করতে হবে।

২। পচা বাসি খাবার খাওয়া যাবে না।

৩।  হাত ভালোভাবে পরিষ্কার করে খাবার খেতে হবে।

৪। ছয় মাসের কম বয়সী শিশুকে শুধু মায়ের দুধ ও স্যালাইন খাওয়াতে হবে।

৫। যদি সম্ভব হয় তবে শিশুকে অসুস্থ রোগী থেকে দূরে রাখতে হবে।

৬। খাবার তৈরীর আগে, শিশুকে খাওয়ানোর আগে এবং পায়খানার পর সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাস করতে হবে।

৭। সব সময় খাবার পানি ফুটিয়ে খেতে হবে।

৮। বোতলের দুধ পান করানো থেকে বিরত থাকতে হবে।

৯। ছোট বাচ্চাদের খাওয়ানোর সময় চামচ ব্যবহার করতে হবে।