ইরানের সরকারের বিরুদ্ধে নয় বরং সাধারণ মানুষের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চায় যুক্তরাষ্ট্র : রুহানি

বুধবার তেহরানে ইরানি আইনজীবীদের সঙ্গে এক বৈঠকে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, আমেরিকা তার দেশের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ‘মানবতা বিরোধী অপরাধ’ করছে। এ নিষেধাজ্ঞায় ইরানের সাধারণ জনগণের খাদ্য ও ওষুধকে টার্গেট করা হয়েছে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। ছবি: সংগৃহীত

তিনি আরো বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞা ও অর্থনৈতিক যুদ্ধের ফলে ইরানের সাধারণ জনগণ সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন।

এ যুদ্ধকে রুহানি ‘মানবতা বিরোধী অপরাধ’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, “এটি ইরানের সরকারের বিরুদ্ধে কোনো যুদ্ধ নয় বরং এটি এদেশের সাধারণ মানুষের বিরুদ্ধে যুদ্ধ।”

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের মে মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে আমেরিকাকে পরমাণু সমঝোতা থেকে বের করে নেন একই বছরের নভেম্বরে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করেন।

ইরানের তেল কেনার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ক্ষেত্রে কিছু দেশকে ওই সময় ছয় মাসের জন্য ওয়াশিংটন ছাড় দিলেও সম্প্রতি সে ছাড় প্রত্যাহার করে নিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন।

মার্কিন সরকার বলছে, তারা ইরানের তেল বিক্রি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে চায়। ওয়াশিংটন দাবি করছে,  ইরানের সরকারের আচরণে কথিত পরিবর্তন আনার লক্ষ্যে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

কিন্তু এর ফলে ইরানের সাধারণ মানুষের জীবনযাপন কঠিন হয়ে পড়েছে এবং তারা নানাভাবে দুর্ভোগ ও ভোগান্তিতে পড়েছেন