ভারত ও আফগানিস্তান ম্যাচে মহাকাব্যিক ড্র

মহাকাব্যিক ড্র। মোহাম্মদ শাহজাদের শতরান। ছবি: ইন্টারনেট

[su_dropcap size=”5″]ও[/su_dropcap]য়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে ৩৬তম ড্র। এই মহাকাব্যিক রাতে এশিয়া কাপের সুপার ফোর পর্বের ৫ম ম্যাচে মুখোমুখি হয় ভারত ও আফগানিস্তান। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ানো মহেন্দ্র সিং ধনির কাঁধে এই ম্যাচেই উঠছিল অধিনায়কের দায়িত্ব। রোহিত শর্মা সহ বেশ কয়েক জন অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের বিশ্রামে রেখেছিল ভারত। মোহাম্মদ শাহজাদের অবিস্মরণীয় শতরান খেলায় প্রাণ নিয়ে এসেছিল।

আফগানিস্তান টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ ১১৪ বলে ১০৬.৮৯ স্ট্রাইক রেটে।করেন ১২৪ রান। তার ইনিংস ছিল ১১টা চার ও ৭টা ছয়ে সাজানো। মিডল অর্ডারে আর কেউ দাঁড়াতে না পারলেও লোয়ার মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাবী ৫৬ বলে ১১৪.২৮ স্ট্রাইক রেটে করেন ৬৪ রান। ৫০ ওভার শেষে আফগানিস্তানের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৫২/৮। ভারতের হয়ে জাদেজা ৪৬ রানে ৩ উইকেট নেয় এবং কুলদ্বীপ যাদব ৩৮ রানে ২ উইকেট নেয়।

এটা আরো বেশি লোমহর্ষক হয়ে উঠেছিল যখন ভারতের মিডল অর্ডার ধ্বসে পড়ে। শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৭ রান। বল হাতে স্পিন শিল্পের পিকাসো রাশিদ । নয় উইকেট হারিয়ে একপ্রান্তে জয়ের আলো হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন জাদেজা। প্রথমে বলে সিংগেলর সুযোগ থাকা সত্ত্বেও তা নেননি। মিড উইকেট দিয়ে জাদেজা দ্বিতীয় বলে চার মেরে ম্যাচটা সহজ ক’রে আনে। কিন্তু তখনও রাশিদ খানে তুলির শেষ পোঁচ দেওয়া বাকী। জাদেজা পরবর্তী বলে একরান নেওয়ার ফলে স্ট্রাইকে আসে এগার নাম্বার ব্যাটসম্যান খালিল আহমেদ, যার এটি মাত্র দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ। রাশিদ খানের গুগলি ব্যাটের কানায় লেগে শর্ট ফাইন লেগে যায়, ততক্ষণে জাদেজা স্ট্রাইক এণ্ডে। দুই বলে এক রান প্রয়োজন। অথচ জাদেজা ডিপ-মিড উইকেটে থাকা একমাত্র প্লেয়ারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন। ৪৯.৫ বলে ভারতের ইনিংস থেমে যায় ২৫২ রানে। এই নাটকীয় সমাপ্তি ক্রিকেটের ইতিহাসে চিরবিস্ময় ক’রে রাখবে ম্যাচটি।

ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন কে এল রাহুল, ৬৬ বলে ৬০ রান। আফগানিস্তানের আফতাব আলম, মোহাম্মদ নবী ও রাশিদ খান দুটি ক’রে উইকেট নেন। ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন মোহাম্মদ শাহজাদ।

 

সূত্র: ক্রিকইনফো।

­