৪শ’ বছরের পুরনো পর্তুগিজ জাহাজের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার

ছবি: সংগৃহীত

[su_dropcap size=”5″]প্র[/su_dropcap]ত্নতাত্ত্বিকদের একটি দল পর্তুগাল সমুদ্র উপকূলে চারশ বছর পূর্বের একটি জাহাজের ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পাওয়া গেছে। এইটাকে বলা হচ্ছে দশকের সেরা আবিষ্কার।

রাজধানী লিসবনের কাছে কাসকাইস উপকূলে খুঁজে পাওয়া এ জাহাজের ধ্বংসস্তুপের চারপাশে মসলা, চীনের তৈরি সিরামিকের তৈজসপত্র পাওয়া গেছে যা ষোড়শ শতাব্দীর শেষ বা সপ্তদশ শতাব্দীর শুরুর দিকে তৈরি। এছাড়া, তামার তৈরি কামানের টুকরা এবং বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র পাওয়া গেছে। এছাড়া দাস কেনাবেচায় ব্যবহৃত মুদ্রা পাওয়া গেছে।

দলটির বিশ্বাস, ১৫৭৫ থেকে ১৬২৫ সালের মধ্যে ভারত থেকে ফেরার সময় কোনো এক কারণে জাগাজটি ডুবে যায়। 

ওই সময়ে পর্তুগাল থেকে মসলার সবচেয়ে বেশি চালান এশিয়ায় যেত। কাসকাইস শহর, পর্তুগাল সরকার, নৌবাহিনী এবং লিসবনের নোভা ইউনিভার্সিটির সহায়তায় ১০ বছর মেয়াদের একটি প্রত্নতাত্ত্বিক প্রকল্পের অধীনে জাহাজটি উদ্ধারের কাজ চলছে। প্রকল্প পরিচালক জর্জ ফ্রেইরি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন,

[su_quote]ঐতিহাসিক দৃষ্টিকোণ থেকে এটি দশকের সেরা আবিষ্কার এবং এ দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কারগুলোর অন্যতম।[/su_quote]

পর্তুগালের সাংস্কৃতিক মন্ত্রী লুই মেনদেস বলেন, টাগুস নদীর মোহনাকে ধ্বংসাবশেষের খনি বলে বিবেচনা করা হয়। যার সত্যতা এই আবিষ্কার।

 

সূত্র: বিসিসি।