চলে গেলেন ভাষা সৈনিক প্রফেসর লায়লা নূর

মাছুম কামাল: বিশিষ্ট ভাষা সৈনিক, মহীয়সী নারী প্রফেসর লায়লা নুর (৮৫) আর নেই। শুক্রবার (৩১ মে) সকাল সোয়া ৯ টায় কুমিল্লা নগরীর সিডি প্যাথ হাসপাতালের নিবিঢ় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)।

লায়লা নূর ছিলেন ৫২-এর সাহসী সন্তান ও ভাষা সৈনিক। ভাষা আন্দোলনে জড়িত থাকায় কারা নির্যাতিতও হন এই মহীয়সী নারী।

ভাষা সৈনিক, মহীয়সী নারী প্রফেসর লায়লা নুর (৮৫) আর নেই।

অধ্যাপিকা লায়লা নূর ১৯৩৪ সালের ৫ অক্টোবর কুমিল্লায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী লায়লা নূর ভাষা আন্দোলনের পক্ষে মিছিল করে গ্রেপ্তার হন। ১৯৫৭ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে প্রথম নারী শিক্ষক হিসেবে ইংরেজি বিভাগে যোগদান করেন এবং ১৯৯২ সালে অবসর গ্রহণ করেন। শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য প্রফেসর লায়লা নূরকে ‘বিনয় সম্মাননা পদক-২০১৪’ প্রদান করা হয়।

লায়লা নূর দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। গত ২৮ মে রাতে নগরীর প্রফেসর পাড়ায় নিজ বাসভবনে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে নগরীর সিডিপ্যাথ হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি করা হয়। পরে আজ সকালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বিকেলে ধর্মপুর পূর্ব পাড়া জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে এই মহীয়সী নারীর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাকে গাজীবাড়ি কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। তার জানাজায় কুমিল্লার বিশিষ্ট নাগরিক ও স্বজনেরা উপস্থিত ছিলেন।