বেগম খালেদা জিয়ার ঈদ কাটবে হাসপাতালের প্রিজন সেলে

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ঈদ কাটবে হাসপাতালের প্রিজন সেলে। ঈদের আগেই তাকে মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান  জানিয়েছিল বিএনপি, ২০দলীয় জোট, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টসহ নাগরিক সমাজ। কিন্তু মুক্তি পাননি তিনি।

বেগম খালেদা জিয়া। (ফাইল ছবি)

ফলে, এ নিয়ে টানা পঞ্চমবারের মতো তার ঈদ কাটবে চারদেয়ালে বন্দী অবস্থায়। এর আগে ১/১১ সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দু’টি ঈদ কারাগারে কাটাতে হয়েছে বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়াকে। জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় ঘোষিত সাবজেলে ওই দুই ঈদে খালেদা জিয়ার পাশের আরেকটি সাবজেলে ছিলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও।

জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় স্থাপিত সাবজেলে থাকার সময় ২০০৭ সালের ১৪ অক্টোবর প্রথম উদযাপিত হয় রোজার ঈদ। এরপর ২০০৭ সালের ২১ ডিসেম্বর কোরবানির ঈদও ওই সাবজেলেই উদযাপন করেন তিনি। ওই কারাগারে ৩৭২ দিন কাটানোর পর ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বরে মুক্তি পান।

খালেদা জিয়া ১৯৮২ সালের ৩ জানুয়ারি রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার পর কয়েকবার গ্রেফতার হন। এরশাদবিরোধী আন্দোলনের সময় ১৯৮৩ সালের ২৮ নভেম্বর, ১৯৮৪ সালের ৩ মে, ১৯৮৭ সালের ১১ নভেম্বর তিনি গ্রেফতার হন। তবে তখন তাকে বেশিদিন বন্দি থাকতে হয়নি।

কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়ায় বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া। ফলে এবারও তার ঈদ কাটবে হাসপাতালের কেবিন ব্লকে স্থাপিত প্রিজন সেলে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৮ই ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় নিম্ন আদালতে তার বিরুদ্ধে সাজার রায় ঘোষণার পর থেকে তিনি কারাবন্দি রয়েছেন।