রাঙামাটিতে জেএসএস’র সশস্ত্র এক কর্মী আটক

রাঙামাটি প্রতিনিধি:: পার্বত্য রাঙামাটি জেলার লংগদু উপজেলাতে মহেষপজ্জ্বা নামক এলাকায় যৌথবাহিনী অভিযান চালিয়ে কিরণ বিকাশ চাকমা (৫২) নামের সন্তু গ্রুপের নেতৃত্বাধীন জেএসএস’র এক সশস্ত্র কর্মীকে আটক করেছে। বুধবার (১৯শে জুন) বিকেল ৪ ঘটিকার সময় বাঘাইছড়ি থানা সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।


লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ রঞ্জন কুমার সামন্ত ঘটনার সত্য নিশ্চিত করে জানান, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সশস্ত্র কর্মী কিরোন বিকাশ চাকমাকে লংগদু উপজেলা থেকে যৌথবাহিনী আটক করলেও তাকে বাঘাইছড়ি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। কেননা তার বিরুদ্ধে বাঘাইছড়ি থানায় অভিযোগ রয়েছে।

লংগদুতে অস্ত্রসহ আটককৃত চাঁদাবাজ কিরণ বিকাশ চাকমা জেএসএস (মূল) দলের একজন সক্রিয় সদস্য ছিলেন বলে জানা যায়। পাশাপাশি সে বাঘাইছড়ি সেভেন মার্ডারের অন্যতম পরিকল্পনাকারী বলেও জানা যায়।


যৌথবাহিনীর বিশেষ সুত্রে জানা যায়, যৌথবাহিনীর একটি দল বুধবার সকালে লংগদু উপজেলার মহেষপজ্জ্বা নামক এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানে নামে। এসময় বাঘাইছড়ি উপজেলার সর্বাতলী ইউনিয়নের বাসীন্দা আনন্দ মোহন চাকমার ছেলে ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সশস্ত্র কর্মী কিরণ বিকাশ চাকমা তার সহযোগিদের সাথে উপজেলার মহেষপজ্জা এলাকায় অবস্থান করছিলেন।

পরে ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে যৌথবাহিনীর দলটি কিরণকে আটক করতে পারলেও পালিয়ে যায় তার অন্য সহযোগিরা। এসময় তাকে তল্লাাশী চালিয়ে একটি দেশিয় বন্দুক, ৪টি মোবাইল ও চাঁদার রশিদ বই উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত ব্যক্তি নিজেকে সন্তু লারমা নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) কর্মী বলে দাবি করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বুধবার দুপুরে তাকে লংগদু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

এব্যাপারে বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এ মঞ্জুর আলম জানান, জেএসএস এর চিহ্নিত সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজী ও অবৈধ অস্ত্র রাখার দায়ে মামলার দায়ের করা হবে।