আব্বাস কিয়রোস্তামি’র কবিতা : ভূমিকা ও অনুবাদ – মুরাদ নীল

আব্বাস কিয়রোস্তামি ( ২২ জুন ১৯৪০ – ৪ জুলাই ২০১৬) বিশ্বব্যাপী পরিচিত একজন ইরানি/পার্সিয়ান ফিল্ম মেকার হিসাবে,যাঁর চিত্রনাট্যজুড়ে থাকে কোমল বাস্তবতা,পার্সিয়ান সংস্কৃতি এবং জনগণ।ভিন্নধর্মী সিনেমা ধারণা,ফ্রেম এবং গল্পের জন্য আব্বাস অনন্য।পাহাড়ের ভেতর দিয়ে লংশট যাঁর সিনেমার ট্রেডমার্ক। জীবন, মৃত্যু, সংস্কৃতি ও অস্তিত্ববাদকে অনুসরণ করে তাঁর সিনেমা এগোতে থাকে।

সিনেমার বাইরেও আব্বাস কিয়রোস্তামি আরেকটা বড় পরিচয়, তিনি কবি। সিনেমার মতো তাঁর কবিতাতেও একইরকম স্পর্শ। তাঁর একমাত্র কবিতার বই ___ The Wolf laying in the wait, মূল পার্সিয়ানের ইংরেজি অনুবাদ।

সিনেমায় মিনিমালিজম ধারণাটার সফল প্রয়োগের পর আব্বাস তাঁর কবিতাতেও মিনিমালিজম ধারণার সফল প্রয়োগ ঘটিয়েছেন।

এই কবিতাগুলো নিঃসন্দেহে মিনিমালিস্ট কবিতা। দু’,চার লাইন/ অল্প কথায় যেখানে খুব সহজেই অনেক কিছু বলতে পেরেছেন আব্বাস কিয়রোস্তামি।

আব্বাস কিয়রোস্তামি

১.
আকাশ আমার
পৃথিবীটাও আমার
তাই আমি এতো ধনী।

২.
কী করে
আমি শান্তিতে ঘুমাই
যখন ঘুমের মধ্যেও সময় থামে না
একটা সেকেন্ড।

৩.
যখন থাকো না তুমি
আমি তোমার সাথে কথা বলি,
যখন থাকো পাশে
আমি কথা বলি নিজের সাথে।

৪.
আমি হারিয়ে ফেলেছি
যা কিছু আমি খুঁজে পেয়েছিলাম,
আমি খুঁজে পেয়েছি কিছু
যা আমি হারিয়ে ফেলেছিলাম।

৫.
আমার জীবনের অভিধানে
ভালোবাসার সঙ্গা শুধু
বদলে যাচ্ছে।

৬.
জানালার একপাশ
মুখোমুখি আমার দিকে,
আরেক পাশ
মুখোমুখি চেয়ে থাকে পথিকের দিকে।

৭.
আমার অর্ধেক
তোমার
বাকি অর্ধেক
আমার।

৮.
যখন থাকো না তুমি
আমি নিজের সাথেই তর্ক করি।
আমরা সবকিছু নিয়ে তখন কত সহজেই সমঝোতায় আসি!

৯.

সবুজ পাতারা
হলুদ হয়ে যায়
দিনগুলো চুপসে যায় ঠান্ডায়,
আমার সমস্ত চিন্তা
এগিয়ে যায় মৃত্যুর দিকে।

১০.
শ্রমিক ইউনিয়নও
অবশেষে
মাকড়শার জাল বোনার শ্রম
বুঝতে ব্যর্থ হলো!

১১.
পশ্চিম __
পাখির চোখে যেখানে সূর্য ডোবে
পূর্ব __
পাখির চোখে যেখানে সূর্য ওঠে।

এটুকুই।

১২.
তোমার হয়তো বিশ্বাস হবে না,কিন্তু আমি আমার তৃষ্ণা মেটাই
মরিচীকার পানি পান করেই।

১৩.
উচ্চাতাকে আমি খুব ভয় পাই
আমি পড়ে গিয়েছি অনেক উঁচু থেকে।

আগুনকে আমি খুব ভয় পাই
আমি পুড়েছি অনেকবার।

বিচ্ছিন্নতাকে আমি খুব ভয় পাই
আমি বিচ্ছিন্ন হয়েছি অনেকবার।

মৃত্যুকে আমি ভয় পাই না,
অথচ আমি কখনো মরিনি

এমনকি এখনো না।

১৪
আজকের দিনটাও হারিয়ে গ্যালো
অন্য দিনগুলোর মতোই,
অর্ধেক দিন কাটলো গতকালের চিন্তায়,
বাকি অর্ধেক কাটলো আগামীকালের চিন্তায়।

১৫
আমার হৃদয়টাকে
আলাদা করে কবর দাও,
এটা মরে গেছে।