জোর করে বৃদ্ধের জমি লিখে নেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হলে অতিরিক্ত ডিআইজিও রেহাই পাবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, জোর করে বৃদ্ধের জমিজমা ও গাড়িবাড়ি লিখে নেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হলে অতিরিক্ত ডিআইজি (উপ-মহাপরিদর্শক) গাজী মোজাম্মেল হকও রেহাই পাবে না। তারও সঠিক বিচার হবে।

আরো পড়ুন : ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে স্মারকলিপি পেশ ঢাবি ছাত্রীদের 

দেশে গণতন্ত্র নেই, স্বৈরশাসন চলছে : নজরুল ইসলাম খান

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির নেতা ও সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জোর করে বৃদ্ধের জমিজমা ও গাড়িবাড়ি লিখে নেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হলে অতিরিক্ত ডিআইজি (উপ-মহাপরিদর্শক) গাজী মোজাম্মেল হকের সঠিক বিচার হবে।

অস্ত্রের মুখে নির্যাতন চালিয়ে জাহের আলী নামের জনৈক বৃদ্ধের জমিজমা ও গাড়িবাড়ি লিখে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে পুলিশ সদর দফতরে কর্মরত অতিরিক্ত ডিআইজি গাজী মোজাম্মেল হক ও তার স্ত্রী ফারজানা মোজাম্মেলের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে মহানগর হাকিম আদালতে মামলা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আপনি যথার্থই বলেছেন। আমি এ নিউজটি শুনেছি এবং দেখেছি। আমি আগেও বলেছি, কেউ অপরাধ করে যদি পার পেয়ে যায়, তাহলে আমরা বসে আছি কেন?

‘আমরা নিশ্চয়ই এটা দেখব। আমাদের দেখার কাজ শুরু হয়ে গেছে। আপনারা নিশ্চিন্ত থাকেন, তিনি যদি এ বিষয়ে জড়িত থাকেন, যদি প্রমাণিত হয়, তবে তার বিচারও সঠিকভাবে হবে।’

শিশু ধর্ষণের ঘটনা বিবেককে নাড়া দেয় উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, হত্যাকাণ্ড ও শিশু ধর্ষণের মতো অমানবিক ঘটনাগুলো আমাদের বিবেককে নাড়া দেয়। দেশের সামাজিক শাসন ক্ষয়ে গেছে। সামাজিক মূল্যবোধ কমে গেছে। এগুলো রোধ করতে পারলে, আমরা কিছুটা ফল পাব।