ফল নিয়ে সেই ডেঙ্গু রোগীকে দেখতে গেলেন সাঈদ খোকন

সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী তানজিম আল ইসলামের স্ত্রী সাদেকুন নাহার ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ায়, তিনি ডিএসসিসি মেয়র ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে আইনি নোটিশ পাঠান। আইনি নোটিশ পেয়ে ওই রোগীকে দেখতে ফল নিয়ে তার বাসায় গেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন।

 

শনিবার (১৩ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর খিলগাঁওয়ে ওই আইনজীবীর বাসায় যান তিনি। এ সময় মেয়র আইনজীবীর স্ত্রীর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন।

ডেঙ্গু ও এডিস মশা নিধনে ব্যর্থতার অভিযোগ এনে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে ডিএসসিসি মেয়র ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) আইনি নোটিশ পাঠান তানজিম আল ইসলাম।

অ্যাডভোকেট তানজিম জানান, মেয়রের আগমন উপলক্ষে শনিবার সকাল থেকেই খিলগাঁওয়ের একতা সড়কে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা রাস্তা পরিষ্কার শুরু করেন। বেলা সাড়ে ১১ টায় মেয়র সাঈদ খোকন আইনজীবীর বাসার সামনে পৌঁছান। এরপর তিনি সরাসরি তানজিমের বাসায় ফল নিয়ে প্রবেশ করেন। এ সময় সাদেকুন নাহারের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। সাদেকুন নাহার অসুস্থতার অভিজ্ঞতার কথা মেয়রকে জানান। এই এলাকায় আর বেশিদিন থাকবেন না বলেও মেয়রকে জানান তিনি। এ সময় অ্যাডভোকেট তানজিম মেয়রকে মশা নিধনে সব বিভাগের সমন্বয়ের পরামর্শ দেন। সাঈদ খোকন প্রায় আধা ঘণ্টা সেখানে অবস্থান করেন।

আইনজীবীর বাসা থেকে বেরিয়ে মেয়র সাংবাদিকদের বলেন, ‘ডেঙ্গুর প্রকোপ বিগত কয়েক বছরের তুলনায় বেশি। নগর কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় আছে। সব শক্তি দিয়ে ডেঙ্গু মোকাবিলার জন্য কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। সম্মানিত নাগরিকদের আহ্বান জানাচ্ছি—আপনারা সতর্ক থাকবেন। নাগরিকের সতর্কতা এবং কর্তৃপক্ষের সমন্বয়ে ডেঙ্গুমুক্ত শহর উপহার দিতে পারবো বলে আশা করি। নাগরিকদের বলবো—ভয়ের কিছু নেই, আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই; আমরা আপনাদের পাশে আছি।’