রংপুরে এরশাদের জানাজায় মানুষের ঢল

রংপুরের পল্লী নিবাসেই সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিরোধীদলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে রংপুরের মানুষের ভালোবাসায় শ্রদ্ধা রেখে মঙ্গলবার দুপুরে পার্টির সিনিয়র নেতারা এরশাদকে সমাহিত করার বিষয়ে চূড়ান্ত এ সিদ্ধান্ত নেন।

মঙ্গলবার বেলা ২টা ২৯ মিনিটে রংপুর কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে চতুর্থবারের মতো জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরশাদের জানাজায় ইমামতি করেন রংপুর করিমিয়া নুরুল উলুম মাদ্রাসার মুহতামিম আলহাজ মাওলানা মুহম্মদ ইদ্রিস আলী।জানাজা শেষে সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা এরশাদের মরদেহে শ্রদ্ধা জানান। শেষ শ্রদ্ধা জানাতে সেখানে সর্বস্তরের জনতার ঢল ছিল চোখে পড়ার মত।

পল্লীবন্ধু খ্যাত এরশাদ রংপুর-৩ (সদর) আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন। এরশাদ জেলে থেকেও এ‌ই আসন থেকে ভোট করে নির্বাচিত হয়েছিলেন। রংপুরকে জাতীয় পার্টির ঘাঁটি হিসেবে বিবেচনা করা হয়।  এ আসন থেকে টানা ছয়বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এইচ এম এরশাদ।

পল্লীবন্ধুকে নিয়ে রংপুরের মানুষেরা স্থানীয় জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা পল্লী নিবাসে এরশাদের জন্য কবর খুঁড়ে রাখেন। তারা এরশাদকে রংপুরেই সমাহিত করার দাবী জানান।

রংপুরের পল্লী নিবাসেই হলো এরশাদের সমাধি, জানাজায় মানুষের ঢল। ছবি-সংগৃহিত।

 

রংপুর কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে জানাজা শেষে সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় পল্লী নিবাসে।