স্বপযাত্রীর বর্ষার অনুষ্ঠান ‘আজ শ্রাবণর আমন্ত্রণে’ বর্ষা আবিষ্ট হয়ে আছে বাঙালির আরাধনায়

বাংলার জীবনযাত্রার সঙ্গে বর্ষার সম্পর্ক অবিচ্ছেদ্য। বর্ষা বাঙালির জীবন গাঁথার সঙ্গে মিলে জীবন্কে করেছে পুলকিত, শিহরিত, আবার কখনা বেদনা-বিধুর। বাংলা সাহিত্যের পূর্ণ রস আস্বাদন বাংলা ভাষাভাষীদর কাছে তাই বর্ষার গান ও কবিতার বিকল্প নাই।

বাংলাদশর ছয় ঋতুর মাঝে বর্ষার স্থান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ষড়ঋতুর লীলার মাঝে বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য বর্ষাকাল সবচেয়ে আকর্ষণীয়। সে কারণে বর্ষা আবিষ্ট হয়ে আছে বাঙালির আরাধনায়।

গতকাল ১৮ জুলাই সন্ধ্যা ৭টায় আবৃত্তি সংগঠন স্বপযাত্রী আয়াজিত বর্ষার কবিতা নিয়ে ‘আজ শ্রাবণের আমন্ত্রণে’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বক্তারা একথা বলেন।

আলী প্রয়াস সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ও রাজীব চক্রবর্তীর স্বগত কথন শুরু হওয়া উক্ত অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কবি রিজায়ান মাহমুদ, কবি ও সাংবাদিক এজাজ ইউসুফী, কবি খালদ হামিদী, শিল্পকলা একাডমির কার্য নির্বাহী পরিষদর সাধারণ সম্পাদক, নাট্যজন, সংগঠক সাইফুল আলম বাবু।

সদ্য প্রয়াত গীতিকার, সংগীতশিল্পী ও নাট্যজন শানু বিশ্বাসকে উৎসর্গিত ও তাঁর গান দিয় শুরু করা অনুষ্ঠানে বক্তারা আরও বলেন, বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতির বিভিন্ন শাখায় বর্ষা ঋতু নিয়ে রয়েছে উচ্ছসিত বন্দনা, অনুরাগ।

রহস্যময়ী এ বর্ষার রপ, বৈচিত্র্য, চমক, বর্ণচ্ছটা এবং আকাশ-প্রকতির গভীর মিতালী শিল্প-সাহিত্যর সরস উপকরণ হিসেবে আবহমানকাল থেকেই অনুপ্রাণিত ও স্পন্দিত করে আসছে শিল্পী, কবি ও সাহিত্যিকদের। বর্ষাকাল আকাশে মেঘ জমাট বাঁধার সঙ্গে সঙ্গে কবিদের মনও ভারাক্রান্ত হয়ে যায়।

বলা যায় বৃষ্টিতে সৃষ্টির উৎসব চলে। কতো ছন্দ, কতো বর্ণনায় কবিরা চিত্রায়িত করেন বর্ষাকে তাদের রচনা পড়লই অনুভব করা যায়।

অনুষ্ঠান স্বপযাত্রীর নিজস্ব পরিবশনায় দ্বৈত আবৃত্তি করেন দীপ্তম দাশগুপ্ত ও মিথিলা মারমা, ইমতিয়াজ আহমদ ও ফারজানা আক্তার, তানিম চধুরী ও লুজাইনা আনায়ার নাহা, মোঃ সাইদুল ইসলাম শাকিল ও বিপা দাশ এবং একক আবৃত্তিতে অংশ নেন স্বপযাত্রীর সদস্য উমসিং মারমা ঊর্মি, জীবন বড়ুয়া, তানভিরুল মিরাজ রিপন, মোঃ নাজিম উদ্দিন, মুনমুন ভৌমিক, সরভ শর্মা, মাসফিয়া সলিম, রবীন দাশ, মাহা, কুঞ্জ, ও মোহাম্মদ এবং শাকিল।

আবৃত্তি দলের শিল্পীরা বর্ষার কবিতা আবত্তি করেন। এতে অংশ নেন ফারজানা ওমর তানজু (স্বরনদন প্রমিত বাঙলা চর্চা কেন্দ্র),জেবুন নাহার শারমিন (চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আবত্তি মঞ্চ), জলিল উল্লাহ (বাধন আবত্তি পরিষদ), শামীমা ইয়াসমিন (উচারক আবত্তি কুঞ্জ), পিয়া দাশ (তারুণ্যর উচ্ছ্বাস), লিপি সেন (ত্রিতরঙ্গ আবৃত্তি দল), নুসরাত জাহান পুষ্প (স্বদেশ আবত্তি সংগঠন), মপিয়া বিশ্বাস (শব্দনাঙর আবত্তি সংসদ), ও প্রিয়ম দাশ (দৃষ্টি)। পুরা অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করন ইয়াসির সিলমী।

প্রেরক- ফরিদ উদ্দিন মাহাম্মদ

সাধারণ সম্পাদক

স্বপযাত্রী- ০১৬৮০১৮৫৫৫৮