স্ত্রীর মোবাইল উদ্ধারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার এলাহী কান্ড

মাদারগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিনুল ইসলামের স্ত্রীর অত্যন্ত প্রিয় মোবাইল ফোন বন্যার পানি দেখতে গিয়ে পানিতে পরে যায়। প্রিয় ফোনটি হারিয়ে স্ত্রীর মনখারাপ সইতে না পেরে ফায়ার সার্ভিসকেই কল করেন এই কর্মকর্তা

ব্রিজের উপর দাঁড়িয়ে সেলফি তোলার সময় হাত ফসকে পানিতে পড়ে যায় মোবাইল ফোনটি।

খবর পেয়ে মাদারগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার সুমন মিয়ার নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে ছয় সদস্যের একটি দল। কয়েক ঘণ্টা চেষ্টার পর উদ্ধার হয় মোবাইল ফোনটি। এই দৃশ্য দেখতে ভিড় জমায় শত শত উৎসুক মানুষ।

ঘটনাটি টক অব দা টাউনে পরিণত হয়েছে।

জানা গেছে, আমিনুল ইসলাম বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার সিধুলী ইউনিয়নের চরলোটাবর গ্রামে বন্যার পানি দেখতে গিয়ে ঐ স্থানে একটি ব্রিজে দাঁড়িয়ে স্ত্রীর সাথে মোবাইলে সেলফি তুলতে যান। এ সময় অসাবধানতাবশত হাত ফসকে মোবাইলটি পানিতে পড়ে যায়। পরে মাদারগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসকে জানালে তারা ডুবুরির জন্য জামালপুর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেন। একদিন পর শুক্রবার মাদারগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার সুমন মিয়ার নেতৃত্বে ৬ সদস্যের একটি ডুবুরির দল বহুকষ্টে কয়েক ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে মোবাইলটি উদ্ধার করে। এই দৃশ্য দেখার জন্য ব্রিজের দুপাশে কয়েকশ উৎসুক মানুষ জড়ো হন।

মাদারগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস-১০ মডেলের মোবাইলটি তার স্ত্রীর খুব প্রিয়। তাই ফোনটি উদ্ধার করার জন্য ফায়ার সার্ভিসের সাহায্য নেয়া হয়েছে।