ঘুষের ৮০ লাখ টাকা পাশের বাসার ছাদে ফেলে দেন ডিআইজি পার্থর স্ত্রী

রোববার দুপুরে সিলেট কারা কর্তৃপক্ষের ডিআইজি পার্থ গোপাল বণিককে গ্রে`ফতার করতে গেলে ৮০ লাখ টাকা ব্যাগে ভরে পাশের বাসার ছাদে ফেলে দেন তার স্ত্রী। যদিও পরে বিকালে টাকাসহ তাকে (পার্থ) গ্রে`ফতার করা হয়।

পার্থ বণিকের ফ্ল্যাটে দুদক অভিযান শুরু করে রোববার দুপুর ২টার দিকে। দুদক পরিচালক মুহাম্মদ ইউসুফ জানান, প্রায় ২ ঘণ্টা পার্থর স্ত্রী ডা. রতন মনি সাহা নানা টালবাহানা করেন। 

আরও পড়ুন: অতিরিক্ত সচিবের অপেক্ষায় ফেরি পার হতে তিন ঘণ্টা দেরি, অ্যাম্বুলেন্সে থাকা তিতাসের (১৩) মৃ`ত্যু

প্রথমে মুঠোফোনে বলেন, তিনি বাসায় নেই। মিরপুরে আছেন। সেখান থেকে ফিরতে ২ ঘণ্টার বেশি সময় লাগবে। অথচ সে সময় তিনি ফ্ল্যাটেই ছিলেন।

দুদক টিম বিকল্প পন্থায় ফ্ল্যাটে প্রবেশের কথা বললে রতন মনি সাহা নিজেই দরজা খুলে দেন। তবে ততক্ষণে ঘু`ষ-দু`র্নীতির মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে পার্থর আয় করা ৮০ লাখ টাকা ২টি ব্যাগে ভরে পাশের বাসার ছাদে ফেলে দেন তিনি। পরে দুদকের টিমের সদস্যরা তাকে নিয়েই ওই টাকা উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন: এবার ৮০ লাখ টাকাসহ ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল গ্রে`প্তার

এর আগে রোববার সকালে চট্টগ্রাম কারাগারের দু`র্নীতি, ঘু`ষ ও অ`বৈধ সম্পদ অর্জন সংক্রান্ত অভিযোগের বিষয়ে পার্থ দুদক টিমের কাছে বক্তব্য দিতে সংস্থার প্রধান কার্যালয়ে হাজির হন।