কাশ্মীর সংকট নিয়ে জাতিসংঘে রুদ্ধদ্বার বৈঠক, দুশ্চিন্তায় ভারত!

পাকিস্তানের অনুরোধ ও চীনের সমর্থনের পর এবার কাশ্মীরের চলমান সংকট নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক ডেকেছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ (ইউএনএসসি)।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় কাশ্মীর সংকট নিয়ে এ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে কাশ্মীরের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় বসবেন বিশ্বনেতারা। খবর ডন ও জিয়ো নিউজ উর্দূর।

এদিকে এ বৈঠক ডাকায় ভারত চিন্তিত হয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি।

বৃহস্পতিবার ইসলামাবাদে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের খবর পাওয়ার পর থেকেই ভারত চিন্তিত হয়ে পড়েছে। এখন তারা বৈঠকটি বানচালের চেষ্টা করছে।

কাশ্মীর নিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের বিষয়টিকে নিজেদের কূটনৈতিক সফলতা হিসেবে দেখছে পাকিস্তান।

মাহমুদ কোরেশি বলেন, কূটনৈতিকভাবে এটি আমাদের জন্য বড় বিজয়। এখন ভালোভাবে কাশ্মীর ইস্যুটি নিরাপত্তা পরিষদে উপস্থাপন করে এটি চালিয়ে যেতে হবে। ইতিমধ্যে ভারত বিষয়টি নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছে।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের অনুরোধ ও চীনের সমর্থনে কাশ্মীরের চলমান সংকট নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক ডেকেছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ (ইউএনএসসি)।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় কাশ্মীর সংকট নিয়ে এ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে কাশ্মীরের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় বসবেন বিশ্বনেতারা।

বৈঠকের ব্যাপারে ইউএনএসসি প্রেসিডেন্ট জোয়ানা রোনেকা বলেন, খুব সম্ভবত ১৬ আগস্ট ইউএনএসসি জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসতে যাচ্ছে। বিশেষ কারণে পরিষদ বৃহস্পতিবার বৈঠকে বসতে না পারায় এটি শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

বর্তমানে ইউএনএসসির সভাপতির দায়িত্বে রয়েছে পোল্যান্ড। ১৫ সদস্যের অংশগ্রহণে পোল্যান্ড ওই বৈঠক পরিচালনা করবে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যগুলো।

এর আগে গত মঙ্গলবার নিরাপত্তা পরিষদ বরাবর লেখা এক চিঠিতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরাইশি ভারতের অবৈধ সিদ্ধান্ত নিয়ে বৈঠকে বসার জন্য নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। বুধবার চীনও পাকিস্তানের পক্ষে ইউএনএসসিকে বৃহস্পতি বা শুক্রবার কাশ্মীর নিয়ে বৈঠকে বসার আহ্বান জানায়।