ইংল্যান্ডের মহাকাব্যিক জয়ে আজীবন ফ্রি চশমা পাবেন জ্যাক লিচ

গতকাল ইংল্যান্ডের মহাকাব্যিক জয়ের নায়ক যদি বিশ্বকাপ জয়ী বেন স্টোকস হন, পার্শ্বনায়ক অবশ্যই জ্যাক লিচ। শেষ উইকেটে জ্যাক লিচ ওভাবে স্টোকসকে সঙ্গ না দিলে ইংল্যান্ড তো বহু আগেই হেরে যায়। সেটা হতে দেননি জ্যাক লিচ।

১৭ বলে করেছেন মাত্র ১ রান; কিন্তু তাঁর ইনিংসটা সময়ের হিসাবে একটি সেঞ্চুরির চেয়েও অনেক বেশি এগিয়ে। আর মহামূল্যবান এই ইনিংস খেলার পথে নজরে পড়েছে লিচের দৃঢ় প্রত্যয়ের। প্রায় প্রতিটি বল মোকাবিলা করার আগে একবার করে চশমাটা মুছে নিচ্ছিলেন তিনি। যাতে প্যাট কামিন্সের নব্বই মাইল বেগে ধেয়ে আসা বলগুলো দেখেশুনে মোকাবেলা করা যায়!

ম্যাচ শেষে জ্যাক লিচের এই অবদান ভুলে যায়নি ইংল্যান্ডের চশমা কোম্পানি স্পেকসেভারস। বাকি জীবন জ্যাক লিচকে ফ্রি চশমা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সেই কোম্পানি

ম্যাচ শেষে নায়ক স্টোকস তাঁর যোগ্য সহকারীর কথা ভোলেননি মোটেও। একটা টুইটে স্পেকসেভারসকে মেনশান করে বলেছেন, ‘স্পেকসেভারস, অন্তত এই কাজটা করুক, বাকি জীবনের জন্য জ্যাক লিচকে ফ্রি চশমা দেওয়ার ব্যবস্থা করুক!

টুইটটার জবাব দিতে দেরি করেনি স্পেকসেভারসও। তারাও লিখেছে, ‘আমরা নিশ্চিত করছি, বাকি জীবনের জন্য জ্যাক লিচকে ফ্রি চশমা বিলিয়ে যাব আমরা!’

উল্লেখ্য গতকাল অ্যাসেজ সিরিজের শ্বাসরুদ্ধকর  তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়াকে  ১ উইকেটে পরাজিত করে সিরিজে সমতায় ফিরে। এর আগে ১ম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার ১৭৯ রানের পর ইংল্যান্ডও মারাত্মক ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে মাত্র ৬৭ রানে অল আউট হয়ে যায়। ২য় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া ব্যাটিংয়ে নেমে ২৪৬ রানে অল আউট হয়ে গেলে ইংল্যান্ডের জন্য জয়ের টার্গেট দাড়ায় ৩৫৯ রানের। ২য় ইনিংসে ইংল্যান্ড ভালো শুরু করে শেষে এসে আবার ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে। এক সময় তাদের স্কোর দাড়ায় ৯ উইকেটে ২৪৬ রান। শেষ উইকেটে জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের প্রয়োজন হয়ে দাড়ায় ৭৩ রানের।ঠিক সেই মুহুর্তে ক্রিজে থাকা বেন স্টোকসের সাথে জুটি গড়তে মাঠে নামেন জ্যাক লিচ।অস্ট্রেলিয়া যখন জয়ের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলো ঠিক সেই মুহুর্তে বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচের জয়ের নায়ক বেক স্টোকস আবার বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় তাদের সামনে। শেষ পর্যন্ত লিচকে সঙ্গে নিয়ে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়েন  ১৩৫ রানে অপরাজিত বেন স্টোকস। সঙ্গী জ্যাক লিচের সংগ্রহ ছিলো ১৭ বলে ১ রান!