তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা’র উদ্বোধন আজ

ছবি: সংগৃহীত

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মেলা চলবে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত। এবারের মেলায় প্রত্যেক মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তর, পরিদপ্তরের আলাদা স্টল থাকবে। জেলা, উপজেলাবিভাগীয় পর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারাও সরকারের সার্বিক উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরবেন।

বুধবার মেলা প্রাঙ্গনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা জেলা প্রশাসক আবু সালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান এ তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, শরীফ রায়হান কবির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), সহকারি কমিশনার রাকিব হাসান প্রমুখ।

জেলা প্রশাসক বলেন, মেলায় মোট ৩৩০টি স্টল থাকবে। মেলায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং সংস্থা এসব স্টল স্থাপন করেছে। তিনদিনের এ মেলায় আমরা মূলত সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড এবং সরকারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাগুলো আমরা জনগণের কাছে উপস্থাপন করব। ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হিসেবে উন্নীত হওয়ার লক্ষ্য কীভাবে অর্জন করব তা শোকেসিং করা হবে।

উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে আজ দুপুরে ইআরডিতে বিদেশি কূটনীতিক ও উন্নয়ন সহযোগীদের নিয়ে একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। সেমিনার শেষে অতিথিরা মেলা পরিদর্শন করবেন। এ ছাড়া জাতীয় উন্নয়ন মেলার তিন দিনে তিনটি সেমিনার হবে।

প্রথম দিনে বিকেল ৫টায় ‘বঙ্গবন্ধুর উন্নয়ন দর্শন ও আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান। দ্বিতীয় দিনে ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০টি বিশেষ উদ্যোগ ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা’ শীর্ষক এবং শেষ দিনে ‘শিক্ষিত জাতি সমৃদ্ধ দেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

আবু সালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান বলেন, মেলায় সরকারি সেবা প্রতিষ্ঠান, দপ্তর কিছু ওয়ানস্টপ সার্ভিস সেবা দেবে। যেমন বিআরটিএ গাড়ীর নিবন্ধন, ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন সেবা দেবে। পাসপোর্ট অধিদপ্তর মেলায় সরাসরি পাসেপোর্ট আবেদন গ্রহণ এবং পাসপোর্ট ফি গ্রহণ করবে। এছাড়াও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের স্টলে ২০১৯ সালে হজে যেতে ইচ্ছুকরা নিবন্ধন করতে পারবেন। প্রতদিন সন্ধ্যায় মেলা প্রাঙ্গনে বর্নাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

গত বছর একযোগে দেশের ৬৪টি জেলায় উন্নয়ন মেলা অনুষ্ঠিত হয়। সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরতে ‘উন্নয়নের গণতন্ত্র, শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র’– এই স্লোগানকে সামনে রেখেই জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ মেলার আয়োজন করা হয়।