বুয়েটের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ জানানোর ওয়েবপেজটি বন্ধ করলো বিটিআরসি

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের শিক্ষার্থীদের তৈরি একটি ওয়েবপেজ যেখানে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে তার অভিযোগ জানাতে পারতো, সেটি বন্ধ করে দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বুধবার (৯ অক্টোবর) বিটিআরসি ওয়েবপেজটি বন্ধের নির্দেশনা দিলেও বিষয়টি বৃহস্পতিবার জানাজানি হয়।

ওয়েবপেজটিতে নিজের পরিচয় প্রকাশ না করেই কোনো শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে তার অভিযোগ জানাতে পারতো। এই ওয়েবপেজে বেনামে করা ১৭৭টি অভিযোগ তালিকাভুক্ত রয়েছে।

বুয়েটের হলগুলোতে ভিন্নমতের কারণে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর নির্যাতনের অভিযোগ বহু পুরনো।

এসব অভিযোগের মধ্যে ৭২টিই তালিকাভুক্ত হয় শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার পর। অভিযোগগুলো বেশিরভাগই ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।

এমনই এক সময়ে বিটিআরসি একটি ই-মেলের মাধ্যমে দেশের সমস্ত আন্তর্জাতিক ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) অপারেটর ও ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানকে (আইএসপি) তাদের নেটওয়ার্ক থেকে ওয়েবপেজটি ব্লক করতে বলা হয়েছে।

ওই ই-মেইলটিতে টেলিকম নিয়ন্ত্রকের সিস্টেম ও সার্ভিস বিভাগের সিনিয়র সহকারী পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. আসিফ ওয়াহেদ স্বাক্ষর করেছেন। তবে কেন এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে কোনো ব্যাখ্যা ই-মেইলটিতে দেওয়া হয়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিটিআরসির একজন শীর্ষ নির্বাহী বলেন, “সাবডোমেইন পেজটি বন্ধ করতে ইতোমধ্যে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।”

২০১৬ সালে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের পাঁচজন শিক্ষার্থী একটি গবেষণার অংশ হিসেবে এই ওয়েবপেজটি তৈরি করেছিলেন। বুধবার বিটিআরসির আদেশ জারি হওয়ার পর থেকেই এটিতে প্রবেশ করা যাচ্ছে না।

বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের টেক্সটাইল মেশিনারি ও ডিজাইন বিভাগের প্রভাষক তারিক রেজা তোহা, বুয়েটের পাঁচ শিক্ষার্থীর মধ্যে একজন ছিলেন যারা ওই ওয়েবপেজটি তৈরি করেছিলেন।

তারিক রেজা তোহা বলেন, “আমরা একটি অ্যাকাডেমিক গবেষণার অংশ হিসেবে ওয়েবপেজটি তৈরি করেছিলাম। গবেষণা শেষ হওয়ার পরে এর রক্ষণাবেক্ষণ ও ভবিষ্যত কার্যক্রমের জন্য ওয়েবপেজটিকে বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছিল।”

ওয়েবপেজটি বন্ধের বিষয়ে বিটিআরসির আদেশ সম্পর্কে তার মতামত জানতে চাইলে তারিক রেজা বলেন, “আমার এ বিষয়ে কিছু বলার নেই কারণ এটি আমার অধীনে নেই। আপনাকে বুয়েটের সিএসই বিভাগের কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলতে হবে।”

সূত্র -ঢাকা ট্রিবিউন