ঐক্যফ্রন্ট-ড. কামালকে নিয়ে পথ চলা সম্ভব না: গয়েশ্বর

বৃহস্পতিবার রাতে জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মানিক মিয়া হলে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপির উদ্যোগে ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস: গণতন্ত্র: শহীদ জিয়াউর রহমান’ শীর্ষক আলোচনা সভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের প্রতি ইঙ্গিত করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘যার সঙ্গে আমার আদর্শিক বিপরীত, যিনি বেগম খালেদা জিয়াকে ওন করেন না, যিনি বিএনপির রাজনীতি ওন করেন না, যিনি জিয়াউর রহমানকে ওন করেন না। তাকে সামনে রেখে পথ চললে সেই পথ অতিক্রম করা সম্ভব? এটা আমি মনে করি না।’

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘আমরা আমাদের অগ্রাধিকারটা ঠিক করতে পারি নাই, আমরা আমাদের ঐক্যটাকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। হ্যাঁ ঐক্যের একটা আবেদন ছিলো জনগণের মাঝে- একটা ইউনিটি দেখতে চায়। সেই ইউনিটির মাধ্যমে কী দেখতে চায়? 

একটা মুক্ত বাংলাদেশ দেখতে চায়, একটা গণতন্ত্রের মুক্তি দেখতে চায়। কিন্তু আমরা ইউনাইটেড হইলাম, গণতন্ত্র মুক্তি পাইলো না, ৩০ তারিখের ভোট ২৯ তারিখ রাতে শেষ হলো তারপরেও বেগম খালেদা জিয়া জেলখানায় থাকলেন।’

তিনি বলেন, ‘তারপরও আমরা সন্তুষ্ট হতে পারলাম না। কারণ এই যে দু-একজন এ্যাক্সিডেন্টলি এমপি হয়ে গেছেন মাথাটা খারাপ হয়ে গেলো, তাদেরকে আমরা ধরে রাখতে পারলাম না, তারা দৌঁড়াইয়ে পার্লামেন্টে চলে গেলেন।’

গয়েশ্বর বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া কেন মুক্তি পাবেন? সরকারের কাছে যদি বার্গিনিংয়ে যে বিষয়গুলো আমরা স্পষ্ট করতে না পারি, তাহলে কোন বার্গেনিংটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা যদি সুস্পষ্ট করতে না পারি, তাহলে তো আমাকে ঠকতেই হবে। আজকে আমরা সব এক্সসারসাইজ করেছি শেখ হাসিনাকে সন্তুষ্ট করার জন্য, এমন কোনও কাজ বাকী নাই যেটা আমরা করি নাই। 

এখন জনগণকে সন্তুষ্ট করেন এবং জাতীয়তাবাদী শক্তির প্রাণশক্তি বেগম খালেদা জিয়াকে আমরা মুক্ত করার কাজটা শুরু করা দরকার। কিভাবে করি সেই সিদ্ধান্তেই আমাদের আসা বেশি জরুরি।’