বাংলায় কোনও এনআরসি হবে না, মুসলমানদের তাড়ানো যাবে না: মমতা

সোমবার খড়গপুরে এক সমাবেশে বক্তব্য দেওয়ার সময় ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, বাংলায় কোনও জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি হবে না। এখান থেকে কাউকে তাড়ানো যাবে না। নো-এনআরসি, নো-ডিভাইড অ্যান্ড রুল। কোনও বিভাজন হবে না। যার যতই রাজনৈতিক স্লোগান থাকুক, দেশের থেকে বড় কিছু নয়। 

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এনআরসি আর নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ‘ক্যাব’ নিয়ে ভয় পাবেন না, আমরা আপনাদের সাথে আছি। বাংলায় কোনও এনআরসি হবে না। এনআরসি ও ‘ক্যাব’ একই মুদ্রার এপিঠ আর ওপিঠ। আমরা সবাই নাগরিক, আমরা সবাই ভোট দিই। রেশনকার্ড, স্কুল সার্টিফিকেট, জমির পাট্টা কিছু না কিছু তো সকলের আছে। তাহলে নাগরিকের প্রমাণ আলাদা করে দিতে হবে কেন?’

এনআরসি নিয়ে অসমে মানুষজন যে দুর্ভোগে পড়েছেন, সেই প্রসঙ্গে মমতা বলেন,  ‘অসমে এনআরসি থেকে ১৯ লাখ মানুষের নাম বাদ গিয়েছে। এরমধ্যে ১৪ লাখ হিন্দু বাঙালির নাম বাদ দিয়েছে। তাছাড়া, ১ লাখ  বিহারি ও গোর্খাদের নামও বাদ দিয়েছে।’

বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় নরেন্দ্র মোদি সরকারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘দেশ ভাগ করবেন না। মানুষকে রুটি, কাপড়, ঘর দিন। কেউ কেউ আছে শুধু ভাষণ দেয় কিন্তু রেশন দেয় না, জীবন দেয় না, চাকরি দেয় না, সভ্যতা দেয় না, শুধু মৃত্যুকে আহ্বান করে। আমরা তাদের পক্ষে নই। আমরা জীবন দিতে না পারলেও কারও জীবন কেড়ে নিই না বলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মন্তব্য করেন।’