অসংখ্য শিশু নিখোঁজ থাকা সত্ত্বেও ইন্দোনেশিয়ায় উদ্ধারকাজ থামিয়ে দেওয়ার নির্দেশ

ভূমিকম্প ও সুনামিতে ইন্দোনেশিয়ায় মৃতের সংখ্যা ২০০০ ছাড়িয়ে গেছে। কর্তৃপক্ষ উদ্ধারকাজ থামিয়ে দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যদিও ধারনা করা হচ্ছে, এখনো অনেক মাটি এবং ভাঙা বিল্ডিংয়ের নিচে চাপা পড়ে আছে।

ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ সংস্থার মুখপাত্র রিপোর্টারদের মঙ্গলবার এক সাক্ষাৎকারে বলেন, সেপ্টেমবর থেকে দুই দুর্যোগে মৃতের সংখ্যা ২০১০ জনে দাঁড়িয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, মাটি এবং ভাঙা বিল্ডিংয়ের নিচে তিন মিটার অব্দি চাপা পড়া মৃতদেহ উদ্ধারের কাজ চালু রাখা সম্ভব নয়। কারণ মাটি এবং পচনের ফলে মৃতদেহগুলো চিহ্নিত করা এখন আর সম্ভব নয়। এছাড়া দূষণ সহ বিভিন্ন রোগ মহামারী আকার ধারণ করবে।’

পালুতে অধিকাংশ মৃতদেহই খুঁজে পাওয়া গেছে, যেখানে দশ হাজার উদ্ধারকর্মী খনন কাজ চালাচ্ছে।

‘আমরা জানি সামনের দিনগুলোতে কী হবে, তাই আমরা যত দ্রুত সম্ভব কাজ করা যায়, করতে চাই।’ উদ্ধারকর্মী আহমেদ আমিন উদ্ধারকাজ থামিয়ে দেওয়ার ঘোষণায় এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন ‘এখনও অনেক শিশুই নিখোঁজ আছে। আমরা তাড়াতড়ি তাদের খুঁজতে চাই।’

কমপক্ষে ৯জন উদ্ধারকর্মী ব্যালারোয়া’র ভাঙা বিল্ডিংয়ে খনন কাজ চালাচ্ছে। বার্তা সংস্থা রয়স্টার্সের ফটোগ্রাফারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী সেখান থেকে কমপক্ষে ১২টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। 

 

সূত্র: আলজাজিরা