ঝাড়ু বেচে স্কুলের খরচ চালায় এই শিশুরা!

পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ারের প্রত্যন্ত কিছু এলাকায় পড়াশোনা চালাতে চতুর্থ থেকে ষষ্ঠ শ্রেণির ১০-১২ জন ছাত্র ঝাড়ু বিক্রি করছে। দারিদ্রতার কারণে সন্তানদের স্কুলের খরচ চালাতে হিমশিম খেতে হয় পরিবারের। তাই নিজেদের পড়াশোনার টাকা জোগাড়ের জন্য রাস্তায় নেমে পড়েছে একদল শিশু।- আনন্দবাজার।

সারা বছর যাতে স্কুল করা যায়, সে জন্য শুধু পিকনিকের মৌসুমে স্কুলে না গিয়ে ঝাড়ু নিয়ে পিকনিক স্পটে ঘুরে বেড়ায় তারা।

জানা গেছে, শীতকালে আলিপুরদুয়ারের ফাসখোয়া, জয়ন্তী ভরে যায় পিকনিকের দলে। আসেন অনেক পর্যটকও। তাদের কাছে ফুল ঝাড়ু বিক্রি করে ছোট ছেলেরা।

তাদের কেউ পড়ে চতুর্থ শ্রেণিতে, কেউ পঞ্চমে। এক জন এ বারে উঠেছে ষষ্ঠ শ্রেণিতে। এই সময়ে স্কুলে ছুটি থাকে। কিন্তু স্কুল খুললেও তারা যায় না। দিনমজুর বাবা-মা পড়ার সব খরচ দিতে পারেন না। তাই তো ঝাড়ু বেচতে হয়।

কোচবিহারের দিনহাটা থেকে বেড়াতে আসা নীলিমা সেন বলেন, ‘ছেলেগুলোর পড়ার প্রতি আগ্রহ দেখে খুব ভাল লাগছে। তবে প্রশাসনিক কর্মকর্তারাও ওদের কথা ভাবুন। না হলে স্থায়ী সমাধান হবে না।’