দুই আনার পঙক্তি || সাগর শর্মা

এইসব সন্ধ্যার ভেতর ট্রেন, স্টেশনে কেন দাঁড়ায়?
আমাকে নেবে, হে ট্রেন, ফেলে আসা শৈশবের ঠিকানায়!

০২.
এইসব জল স্বচ্ছল নোনা ঢেউ পাড়ি দিলেই বাড়ি—
আমি জেলে, মাঝির ছেলে নাও বাই আর মাছ ধরি।

০৩.
তোর চুল যেন-বা বেণি দোলানো আকাশের মেঘ;
বৃষ্টি দিনে ভিজে যাওয়া—আমার একান্ত আবেগ!

০৪.
যেন-বা দেখেছিলাম কবেকার ফেলে আসা বিগত জীবনে—
এই জীবনে দেখেছি একবার, আর দেখি নাই কোনো খানে!

০৫.
তোমাকে সারাদিন সূর্যের মতো প্রার্থনা করি—
সারারাত জোছনার মতো উপভোগ করতে চাই!

০৬.
আকাশ মদির হলে পৃথিবীতে বৃষ্টি নামে—
এক বিরহ পাঠিয়ে দিলাম মেঘের খামে!

০৭.
সে তো ধরা দেয় না, দেয় না কভু দেখা—
যার হাতে আছে আমার অযুত আয়ুরেখা।

০৮.
এসব সন্ধ্যায় লুকিয়ে থাকে গোপন বিষণ্নতা—
বৃষ্টির ভেতর ভিজছে এক করুণ ঝাউপাতা!

০৯.
জ্বরঘোরগ্রস্ত দিন
কেঁপে কেঁপে ওঠা—
যেন, শরীর এক পাতার ভায়োলিন!

১০
জ্বরের ঘোরে থাকলে মনে হয় কেউ-বা যেন আছে সিঁথানে—
সে কি মা, না কন্যা-বোন-বউ, প্রেমিকা কে জানে?

১১.
শীত শীত এই হাওয়ার ভেতর কী যে শিহরণ—
ছাদের উপর একটি চাঁদের হচ্ছে—আলোড়ন!

১২.
তোমাকে যখন বরযাত্রীরা নিতে আসে—
আমি তখন বাঁদরঝোলা শহরমুখী বাসে।

১৩.
নির্ঘুম গভীর হলে রাত কতটুকু পোড়ে—
মনে রয়েছে যে, সে থাকে কোন সুদূরে!

১৪.
যেন নিস্তব্ধতার ভেতর জেগে থাকে রাত—
নিদ্রাহীন চোখ কাটে বিরহের করাত।

১৫.
অন্যকিছু দাও… অন্যকোনো সুর—
শরীরের চেয়েও অন্যকোনো মধুর।

১৬.
দূরে দূরে থাকি, সরে সরে থাকি
উড়ে যদি যায়—অচেনা সে পাখি!

১৭.
যে থাকে দূরে দূরে মনের-অনুমনে;
তার কাছে যেতে চাই খুব গোপনে।

১৮.
এই গরমে চিবুকের—গ্রীবার ঘাম কে মুছে দিচ্ছে সোনাই?
কে পাঠাচ্ছে, মেঘের খামে-প্রেম, হৃদয়ের ঠিকানায়!

১৯.
আমার একলা থাকা দিনে
তুমি কেমন থাকো সোনাই—
আমার দিন কাটে সঙ্গিনে
রাতে—আঁধারের আশঙ্কায়।

২০.
জীবন এক অচল মুদ্রা। যদি বেচে দেয়া যেত হাটে—
সারাদিন খোঁজলাম ক্রেতা। দাম পেলাম না কোন ঘাটে!

২১.
এক থালা ক্ষুধার মতোন রাত নেমে আসে ঘরে—
চলো বসে বসে জোছনা খাই রাতের আঁধারে!

২২.
আমার কী দোষ বলো—হতে চাইলাম এক, হয়ে গেলাম একা!

২৩.
নিসিন্দা পাতার মতো রাত্রি নেমে আসছে গাঁয়ে—

২৪.
একটা ঘোলাটে চাঁদ—ঘুমানোর আগে হাই তুলছে একা!

২৫.
তাড়ি খাওয়া হরিণীর মতো দৌড়াচ্ছে কালো ডোরাকাটা রাত…

২৬.
আহা, রাতের কী মোহ—সবাইকে কেমন ঘুম পাড়িয়ে রাখে!

২৭.
জীবন চালতা ফুলের রঙে ফোটে আছে!

২৮.
মানুষ গোপনে আয়নাতে মুখ লুকায়!

২৯.
আয়নায় নিজেকে দেখে, আপনি কাকে ভাবেন?

৩০.
শূন্যতা ছাড়া মানুষের হারানোর কিছু নেই!