‘সোলাইমানি হত্যায় জড়িত ইরাকি অনুচরদের খুঁজে বের করবে বাগদাদ’

ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি বলেছেন, তার দেশের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লেঃ জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার ঘটনায় যেসব ইরাকি অনুচর জড়িত ছিল তাদের শনাক্ত করতে রাজি হয়েছে বাগদাদ। দু’দিনের ইরাক সফর শেষে তেহরানে ফিরে এক টুইটার পোস্টে এ তথ্য জানান শামখানি।

গত ৩ জানুয়ারি শুক্রবার ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে জেনারেল সোলাইমানিকে বহনকারী গাড়ির ওপর ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে মার্কিন সন্ত্রাসী সেনারা। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরাসরি নির্দেশে চালানো ওই হামলায় ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশদ আশ-শাবির উপ প্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ দুই দেশের আরো ৮ কমান্ডার শহীদ হন।

মার্কিন সেনারা এমন সময় জেনারেল সোলাইমানির উপর ওই হামলা চালায় যখন তিনি ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল মাহদির রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণে বাগদাদ সফরে গিয়েছিলেন। 

মার্কিন সেনারা দূর নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করলেও বাগদাদ বিমানবন্দরে ইরানি জেনারেলের গমনের আগাম খবর এবং কোন গাড়িতে তিনি বিমানবন্দর ত্যাগ করছেন সেসব তথ্য মার্কিন বাহিনীকে বিমানবন্দর থেকেই জানানো হয়েছিল। 

আলী শামখানি তার টুইটার পোস্টে বলেছেন, ইরাকের সেই অনুচরদের শনাক্ত করে তাদেরকে শাস্তি দিতে সম্মত হয়েছে ইরাক সরকার।

ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব শামখানি সম্প্রতি ইরাক সফরে গিয়ে সেদেশের প্রেসিডেন্ট বারহাম সালিহ, প্রধানমন্ত্রী আদিল আব্দুল মাহদি, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ফালিহ ফাইয়াদ এবং গোয়েন্দা প্রধান মুস্তফা কাদিমি’র সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।