মুসলমানদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আইন বাতিল করুন: ভারতকে ইরান

ইরানের অভিভাবক পরিষদের পক্ষ থেকে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে’র কাছে পাঠানো এক চিঠিতে ভারতের মুসলমানদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আইন বাতিল করতে নয়াদিল্লির প্রতি আহ্বান জানিয়েছে তেহরান।

অভিভাবক পরিষদের সদস্য হাদি তাহান নাজিফ স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে ভারতের সাংবিধানিক কাঠামোর আওতায় মুসলমানদের বিরুদ্ধে আরোপিত বৈষম্যমূলক আইন বাতিল করার আহ্বান জানানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে ভারত থেকে যেসব খবর ও ছবি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, মুসলমানদের মৌলিক অধিকার কেড়ে নেয়ার পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা চালানো হচ্ছে।

ভারত সরকার দেশটিতে সাম্প্রদায়িক সংঘাত প্রতিরোধের জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেবে বলে চিঠিতে আশা প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, ভারত সম্পর্কে বিশ্ববাসীর মানসপটে যে চিত্র রয়েছে সেটি হচ্ছে সেদেশের সব ধর্মের অনুসারীরা শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান করে। তারা এই চিত্রের ব্যত্যয় দেখতে চায় না।

ইরানের অভিভাবক পরিষদের চিঠিতে বলা হয়, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে ভারতীয় পার্লামেন্ট যে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাস করেছে তাতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে নাগরিকত্ব ও সম-অধিকার কেড়ে নেয়াসহ অনেকগুলো বৈষম্যমূলক ধারা রয়েছে। 

এসব ধারা জাতিসংঘের মানবাধিকার ঘোষণার (১), (২) ও (১৫) নম্বর অনুচ্ছেদ, নাগরিক অধিকার চুক্তির (২) ও (২৬) নম্বর অনুচ্ছেদ এবং ভারতের সংবিধানেরই (১৪) ও (১৫) অনুচ্ছেদের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।