চলে গেলেন শক্তিমান অভিনেতা ইরফান খান

চলে গেলেন বলিউডের শক্তিমান অভিনেতা ইরফান খান। আজ বুধবার (২৯ এপ্রিল) মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধিরুবাই আম্বানি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।

স্লামডগ মিলিয়নিয়ার মতো চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছেন। অভিনয় করেছেন বলিউড ও হলিউডের বহু ছবিতে।

কোলন সংক্রমণের কারণে হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়েছিল ইরফানকে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ইরফানের মুখপাত্র খবরটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। খবর দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস-এ প্রকাশিত।

২০১৮ সালের মে মাসে নিওরোএন্ডোক্রাইন টিউমারে আক্রান্ত হন ইরফান। উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডনে অনেকটা সময় ছিলেন তিনি।

এ বছর ‘অ্যাংরেজি মিডিয়াম’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় ফিরেছেন ইরফান। তবে এর প্রচারণা করতে পারেননি তিনি। এটি তারই অভিনীত অভাবনীয় ব্যবসাসফল ছবি ‘হিন্দি মিডিয়াম’-এর সিক্যুয়েল। হোমি আদাজানিয়ার পরিচালনায় এতে আরও অভিনয় করেছেন কারিনা কাপুর, রাধিকা মদন ও দীপক দোবরিয়াল।
‘অ্যাংরেজি মিডিয়াম’ মুক্তির পর দর্শকরা ভালোই দেখছিল। কিন্তু কয়েকদিন পরই কোভিড-১৯ রোগের প্রাদুর্ভাবের কারণে সিনেমা হল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ডিজনি প্লাস হটস্টারে এখন ছবিটি দেখা যাচ্ছে।

ক্যান্সার চিকিৎসা নিয়ে জনসম্মুখে কথা বলার পর তিনি এ বিষয়ে তার অভিজ্ঞতা নিয়ে একটি খোলা চিঠি লেখেন। যেখানে তিনি ক্যান্সারের চিকিৎসা নেয়ার সময় তার কষ্টের তীব্রতা এবং জীবনের অনিশ্চয়তার বিষয়টি তুলে ধরেন।

বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে তার ভক্তরা তাকে বাধ ভাঙা সমর্থন জানান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন বলিউড তারকা এবং ভারতের রাজনীতিবিদরা।

অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই নিয়ে কিছুদিন আগে আবেগঘন কথা লিখেছিলেন ইরফান, ‘আমার বাজি ছিল অন্যরকম। দ্রুতগতির একটি ট্রেনে ঘুরছিলাম। স্বপ্ন, পরিকল্পনা, আকাঙ্ক্ষা ও লক্ষ্য ছিল। এগুলোকে ঘিরে খুব ব্যস্ত ছিলাম। হঠাৎ কেউ আমার কাঁধে টোকা দিলো এবং আমি পিছু ফিরে তাকালাম। তিনি টিকিট কালেক্টর। আমাকে জানালেন, ‘আপনার গন্তব্য চলে এসেছে। অনুগ্রহ করে নামুন।‘ আমি দ্বিধাগ্রস্ত হয়ে বললাম, ‘না, না। আমার গন্তব্য আসেনি।’ টিকিট কালেক্টর বললেন, ‘না, এটাই। কখনও কখনও এমন হয়।’

এদিকে গত ২৫ এপ্রিল ইরফানের মা সাইদা বেগম রাজস্থানে মারা গেছেন। সারাভারতে আরোপিত অবরোধের (লকডাউন) কারণে তাকে সামনে থেকে শেষবারের মতো দেখা হয়নি তার। ভিডিও কলের মাধ্যমে মাকে শেষ শ্রদ্ধা জানান তিনি।