বিনা পয়সায় ভরপেট খাওয়া যাবে যে রেস্তোরাঁয়

[su_heading size=”16″]মিলানের এক রেস্তোরাঁয় ভরপেট খেয়ে আপনি টাকা না দিলেও চলবে। খাবার খেয়ে শুধু একটি কাজ করতে হবে আপনাকে।[/su_heading]

‘দিস ইজ নট আ সুশি বার’

দারুণ একটি ব্যবসার মডেল এটি। আপনি যদি জনপ্রিয় হন, তা হলে আপনাকে এই রেস্তোরাঁয় টাকা দিতে হবে না। খাবার খেয়ে শুধু একটি কাজ করলেই চলবে।

‘দ্য মেট্রো’-র প্রতিবেদন অনুযায়ী, ‘দিস ইজ নট আ সুশি বার’ নামে ইতালির মিলানের এই রেস্তোরাঁয় ক্রেতাদেরকে খাবার খেয়ে বিল পরিশোধ করতে হবে না, শুধু বলতে হবে আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলোয়ারের সংখ্যা কত।

আপনার জনপ্রিয়তাকে পুঁজি করেই মুনাফার এক অভিনব পদ্ধতি বেছে নিয়েছে এই রেস্তোরাঁটি। আর এক্ষেত্রে ইনস্টাগ্রামের ফলোয়ারের সংখ্যা দিয়েই ক্রেতাদের জনপ্রিয়তা বিচার করা হচ্ছে।

‘দিস ইজ নট আ সুশি বার’-এর মালিক মাতেও পিত্তারেলো বলছেন, ‘‘এটা ক্রেতাদের সঙ্গে সংযোগ বাড়ানোর একটি পদ্ধতি মাত্র। এই অভিনব পদ্ধতিতে ব্যবসা বাড়ছে, সেই সঙ্গে ক্রেতাদের অংশগ্রহণও সুনিশ্চিত করছি আমরা।’’

আপনাকে  ‘দিস ইজ নট আ সুশি বার’-এর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে লাইক দিতে হবে আর সেই রেস্তোরাঁর একটি ছবি তুলে #দিসইজনটআসুশিবার লিখে নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে সেই ছবিটি পোস্ট করতে হবে। তা হলেই বিনা পয়সায় মিলবে সুশি ও সাশিমি।

যার যে রকম ফলোয়ারের সংখ্যা, তার সেই রকমই বিনা পয়সায় ভোজ মিলবে। ১০০০ থেকে ৫০০০ ফলোয়ারের সংখ্যা হলে মিলবে এক প্লেট সুশি। ৫০০০ থেকে ১০০০০ হলে মিলবে দু’প্লেট সুশি। ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজার ফলোয়ার হলে চার প্লেট ও ৫০ হাজার থেকে ১ লাখ ফলোয়ার হলে মিলবে আট প্লেট সুশি। আর এক লাখের বেশি ফলোয়ার হলে তো পুরো খাবারই বিনা পয়সায় খাওয়া যাবে এই জাপানি খাবারের রেস্তোরাঁয়।