ধর্মঘট ছাড়িয়ে কালির নৈরাজ্য!

[su_heading size=”20″]আজ সকাল থেকে শুরু হয়েছে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘট। ৮ দফা দাবিতে সকাল থেকে শুরু হওয়া এই ধর্মঘটে ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ যাত্রীরা। যাত্রীদের ভোগান্তির কথা ছাড়িয়ে ফেইসবুকের টাইমলাইন আলোকিত করেছে যাত্রী, ড্রাইভারদের মুখে, শরীরে এবং পোশাকে কালি লাগিয়ে দেওয়া।  [/su_heading]

সকাল থেকে যত সময় যাচ্ছে পরিবহন শ্রমিকদের উদ্ভূত সব আচরণ বের হয়ে আসছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। একটা ছবিতে দেখা যায় এক ড্রাইভারের মুখে কালি মাখিয়ে দিয়েছে শ্রমিকরা। অন্য ছবিতে এক স্কুল ছাত্রীর স্কুল ড্রেসে কালি লাগিয়ে দেওয়া হয়।

শ্রমিকদের বাধা না মানলে কোনো কোনো স্থানে গাড়ি ও মোটরসাইকেল আটকে রাখা হচ্ছে। অ্যাম্বুলেন্সের গাড়িতেও ঢেলে দেওয়া হচ্ছে পোড়া মবিল।

এনটিভি অনলাইনের বরাতে জানা যায়, যাত্রী নিয়ে সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশা যাত্রাবাড়ীর কাজলা এলাকায় আসতেই পরিবহন শ্রমিকরা হামলে পড়লেন তাতে। যাত্রীদের টেনেহিঁচড়ে চালককে নামিয়ে চড়থাপ্পড় মারতে শুরু করেন তারা। চাবি নিয়ে গেলেন এক শ্রমিক। চালক হাউমাউ করে কাঁদলে নেতাগোছের আরেকজন শ্রমিক এসে অটোরিকশার চালকের পিঠে হাত দিয়ে ধমক দিয়ে বললেন, ‘যা, সোজা গ্যারেজে চলে যা। দুই দিন রাস্তায় নামবি না। ‘এই ধর্মঘট কার জন্য? তোগো জন্যই তো, দুই দিন কষ্ট কর, আজীবন আরামে গাড়ি চালাবি,’ বলেন নেতাগোছের ওই শ্রমিক।

বাংলা নিউজের মাধ্যমে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জে সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রীদের বহন করা বাসেও হামলা চালিয়েছেন আন্দোলনরত পরিবহন শ্রমিকরা। এসময় তারা বাসচালক ও ছাত্রীদের গায়ে কালি লেপন করেছে। পাশাপাশি ভেঙেছে বাসের গ্লাস।

রাস্তায় পাবলিক বাস না থাকলেও রাজধানীতে দেখা গেছে প্রাইভেট কার, রাইড শেয়ারিং যানবাহন এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব গাড়ি। পরিবহন শ্রমিকদের আক্রমণ থেকে রক্ষা পায়নি সেই সব গাড়ি। গাড়িতে পোড়া মবিল ঢেলে দিচ্ছে তারা।