স্বয়ং ঈশ্বরের হাত ধ’রে আছে যে সেতু!

‘হ্যান্ড অফ গড’ হয়তো আমাদের শুধু মারাদোনার মুখ মনে করিয়ে দেয়। তবে ১৯১৯ সালে ফরাসি ঔপনিবেশিকরা ভিয়েতনামে হিল স্টেশন হিসেবে পাহাড়ের উপরে 150 মিটার লম্বা (490 ফুট) উচ্চতায় জঙ্গলের মধ্য দিয়ে এই সেতুটি তৈরি করে, যার সৌন্দর্য্য আমাদের মধ্যে ‘হ্যান্ড অফ গড’-এর নতুন সংজ্ঞা তৈরি করবে। ভিয়েতনামের দুর্গম পাহাড়ি অঞ্চলের শহর ডানাং। এ শহরেরই ঘন জঙ্গল ফুঁড়ে বেরিয়ে এসেছে ঈশ্বরের হাত। ধরে রেখেছে সোনালি রঙের সেতু।

পর্যটক গ্যুয়েন ট্রুং ফুক এএফপিকে জানান, এই ব্রিজ থেকে ডানাং শহরটি সুন্দরভাবে দেখা যায়। অন্য আরেক পর্যটক গ্যুয়েন হিয়েন ট্র্যাং বলেন, ‘বহু জায়গায় ঘুরেছি আমি, অনেক সেতুও দেখেছি। কিন্তু এত চমৎকার স্থাপত্য আগে কখনও দেখিনি আমি।’

৯৯ বছর আগে তৈরি করা হয়েছিল ৪৯০ ফুট দীর্ঘ এই সেতু। ১৯১৯ সালে ভিয়েতনাম শাসনকারী ফরাসিদের হাতে সেতু প্রথম নির্মিত হয়েছিল। নতুন করে চলতি বছরের জুনে এর উদ্বোধন করা হয়। স্বর্ণের মতো রং। তাই এর নাম ‘গোল্ডেন ব্রিজ’। কমিউনিস্ট দেশ ভিয়েতনাম ইতিমধ্যেই দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার অবশ্য-দর্শনীয় স্থান হিসাবে নিজেকে তুলে ধরেছে। 

টিএ ল্যান্ডস্কেপ আর্কিটেকচারের প্রধান ডিজাইনার ভু ভিয়েত আন্ এএফপিকে বলেন, ‘আমাদের সত্যিই ভীষণ গর্ব হচ্ছে এটা দেখে যে গোটা বিশ্বের মানুষ আমাদের এই কাজের এত প্রশংসা করছেন।’

গোল্ডেন ব্রিজের ডিজাইনার আনহ জানিয়েছেন, ইতোমধ্যেই রুপালি সেতুর কাজও শুরু হয়ে গেছে। হ্যান্ড অফ গডের পর এবার হেয়ার অফ গড। এই হাতের সাথে সামঞ্জস্য রেখেই তৈরি করা হবে চুল এবং তার মধ্য দিয়ে তৈরি হবে রুপালি সেতু।