জন্মের পরপরই বিয়ে দেওয়া হয় কন্যাশিশুর!

কেনিয়ার ওরোমা সম্প্রদায়ের সমাজে চলছে শত বছরের পুরনো এক প্রথা। প্রথাটির নাম ‘দারারা’। এ প্রথায় কন্যাশিশু ভূমিষ্ঠ হবার প্রায় সাথে সাথেই তার বিয়ে দেওয়া হয়। ওরোমা সম্প্রদায়ের বসবাস কেনিয়ার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের তানা নদীর তীরে। এ সম্প্রদায়ের একটি বড় অংশ ইসলাম ধর্মের অনুসারী।

দারারা’ প্রথা শত বছর ধরে চলছে কেনিয়ার ওরোমা সম্প্রদায়ের সমাজে। ছবি: সংগৃহীত

এই প্রথাতেই ১৩ বছর বয়সী ইব্রাহিমের সাথে বিয়ে হয়েছে এক শিশুর যার বয়স ১৩ ঘণ্টাও হয়নি। সদ্যোজাত মেয়ে শিশুটির হাতে গাছের লতা পরিয়ে দেন ইব্রাহিমের বাবা। আর এতেই হয়ে গেলো বিয়ে।

মেয়ের বাবা আব্দি আদোনা বলেন, এখন থেকে আমার মেয়ে বড় হবে এবং ইব্রাহিমের জন্য অপেক্ষা করবে। আমার মৃত্যু হলেও ইব্রাহিম ছাড়া অন্য কেউ তাকে বিয়ে করতে পারবে না। এটাই আমাদের নিয়ম।

‘দারারা’ প্রথার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে আদোনা বলেন, ‘এর ফলে মেয়েটির ভবিষ্যৎ নিরাপদ হলো। তার দিকে আর কেউ তাকাবে না। তার কোন বিপদ হলে দুই পরিবারই এগিয়ে আসবে। উভয় পরিবারের মধ্যে বন্ধন দৃঢ় হবে।’

মেয়ের ইচ্ছা-অনিচ্ছার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, কিসে মেয়ের ভাল হবে সেটা বাবাই ভাল বোঝেন। বাবার ইচ্ছাই মেয়ের ইচ্ছা।