আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিলেন চার ‘ইয়াবা ব্যবসায়ী’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করা ২১ জনের মধ্যে রয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত চার ইয়াবা ব্যবসায়ী।

মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করা এ চারজন হলেন বর্তমান সাংসদ আবদুর রহমান বদি, টেকনাফ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলম, ভাইস চেয়ারম্যান মৌলভি রফিক উদ্দিন ও বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মৌলভি আজিজ উদ্দিন।


মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত সেপ্টেম্বরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ৭৩ জনের হালনাগাদ করা ‘ইয়াবা গডফাদারের’ তালিকায় সাংসদ বদির নাম ১ নম্বরে। জাফর আলম, মৌলভি আজিজ ও মৌলভি রফিকের (এ দুজন সহোদর) নাম যথাক্রমে ৬, ২৫ ও ২৬ নম্বরে।


সাবেক সাংসদ ও টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী অভিযোগ করেন, সাংসদ বদির কারণে টেকনাফ আজ ইয়াবার উৎসভূমিতে পরিণত হয়েছে। বিএনপি-জামায়াতের লোকজনকে নিয়ে তিনি ইয়াবা ব্যবসা পরিচালনা করেন। আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীদের সঙ্গে বদির কোনো সম্পর্ক নেই।


অভিযোগ প্রসঙ্গে জাফর আলম ও মৌলভি রফিক উদ্দিন বলেন, নির্বাচন করার জন্যই দলের মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। জনপ্রিয়তা না থাকলে তারা জনপ্রতিনিধি হতে পারতেন না। ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গেও তারা জড়িত নন।


এ প্রসঙ্গে জানতে সাংসদ বদির যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।