শুধুমাত্র অতিরিক্ত যৌন মিলনের কারণে বিলুপ্তির পথে যে প্রাণী

শুধুমাত্র অতিরিক্ত সময় যৌন মিলনের ফলে বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী একটি ইঁদুরজাতীয় মারসুপিয়াল প্রাণী, এমনটাই জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তবে সব ধরনের নয়, শুধুমাত্র অ্যান্টিচিনাস মারসুপিয়ালগুলির ক্ষেত্রেই এরকম হচ্ছে।

কালো লেজের ধূসর অ্যান্টিচিনাস আর রুপোলি মাথা অ্যান্টিচিনাস— এই দু’টি প্রজাতির পুরুষদের ক্ষেত্রেই এমন ঘটনা ঘটতে দেখেছেন বিজ্ঞানীরা।  


ঘণ্টার পর ঘণ্টা একাধিক সঙ্গিনীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে ক্লান্ত হয়ে পড়ে প্রাণীগুলি। বিজ্ঞানীদের দাবি, টানা ১৪ ঘণ্টা পর্যন্ত যৌন সম্পর্কে রত থাকতে পারে এরা।


এতক্ষণ যৌন সম্পর্কের ফলে বিপজ্জনক পরিমাণে টেস্টোস্টেরন হরমোন ক্ষরিত হয়। একের পর এক অঙ্গপ্রত্যঙ্গ অকেজো হতে থাকে, রোম উঠে যেতে থাকে। কিন্তু তাতেও এরা যৌনতার দিকে থেকে অতৃপ্ত থেকে যায়। এর ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা প্রায় থাকে না এই প্রাণীগুলির, জানান কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অ্যান্ড্রু বেকার।  

বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দু’এক বার ভয়ঙ্কর এই মিলনের পরই মৃত্যু হয় পুরুষটির। জীবনচক্র এক বছরও গড়ায় না।

প্রাণীবিজ্ঞানীদের দুশ্চিন্তা, কয়েক দশক আগেও এই দু’টি প্রজাতির সংখ্যা বর্তমানের থেকে অন্তত দশ গুণ ছিল। এখন শুধুমাত্র কুইন্সল্যান্ডের তিনটি জায়গায় সামান্য কিছু প্রাণী বেঁচে রয়েছে।  

২০১৩ সালে ১৫টি প্রাণীর অস্তিত্বের কথা জানা যায়। কিন্তু এদের ‘সুইসাইডাল মেটিং’-এর কারণেই অস্তিত্ব বিপন্ন হওয়ার মুখে।